মঙ্গলবার, ০৪ জুন ২০২৪, ০৮:৪০ অপরাহ্ন

আর ৮৭ (অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ড্রপ)

আরোগ্য হোমিও হল / ৬৬ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ শুক্রবার, ২৯ মার্চ, ২০২৪, ৬:০৫ অপরাহ্ন
(অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ড্রপ)

Dr. Reckeweg R8/ আর ৮৭ (অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ড্রপ)
 R 87 (Anti Bacterial Drop)
আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো “ আর ৮৭ (ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ)” কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়।
প্রস্তুত প্রণালী : প্রস্তুত প্রণালী : Dr. Reckeweg R87/ জার্মান কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।
আর ৮৭ ড্রপসটির ব্যবহার : ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ, অভ্যন্তরীণ অথবা বাহ্যিক। দুর্বল ইমিউন সিস্টেম, বা ব্যাকটেরিয়া অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকারী হিসাবে ব্যবহার হয়।
আর-৮৭ (অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল) ড্রপটি কার্যকারিতা :  হোমিওপ্যাথি ব্যাকটেরিয়াজনিত রোগে চিকিৎসা কার্যকর। এটি ব্যাকটেরিয়া অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকারী হিসাবে দুর্বল শরীরের ইমিউন সিস্টেমকে আরও শক্তিশালী করে। এর সক্রিয় উপাদানগুলি হোমিওপ্যাথিক ইমিউনো-মডুলেটর হিসাবে কাজ করে যা ম্যাক্রোফেজ (এক ধরনের শ্বেত রক্তকণিকা) এর কার্যকারিতাকে প্রসারিত করে ইমিউন সিস্টেমকে সংশোধন করতে সাহায্য করে যা পুরো শরীরের ইমিউন প্রতিক্রিয়াকে আরও উন্নত করতে সাহায্য করে।
আর ৮৭ (অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল) ঔষধের বর্ণনা : এটি ব্যাকটেরিয়াজনিত রোগের চিকিৎসায় কার্যকর। এটি ব্যাকটেরিয়া অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকারী হিসাবে কাজ করে দুর্বল শরীরের ইমিউন সিস্টেমকে আরও শক্তিশালী করে। এর সক্রিয় উপাদানগুলি ইমিউনো-মডুলেটর হিসাবে কাজ করে যা ম্যাক্রোফেজ (এক ধরনের শ্বেত রক্তকণিকা) এর কার্যকারিতা সক্রিয় করে এবং প্রসারিত করে ইমিউন সিস্টেমকে সংশোধন করতে সাহায্য করে যা পুরো শরীরের ইমিউন প্রতিক্রিয়া উন্নত করে।
আর ৮৭ (অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল) এর উপকারিতা : এটি শরীরের ইমিউন সিস্টেমের উন্নতি এবং শক্তিশালী করার জন্য উপকারী। এতে হাইড্রাস্টিস রয়েছে যা পেশীশক্তির উন্নতি, হজমশক্তি ও কোষ্ঠকাঠিন্য কমাতে সহায়তা করে। এছাড়াও শ্বেত রক্তকণিকাকে শক্তি জোগাতে সিনারজিস্টিকভাবে কাজ করে, শরীরের অতিরিক্ত ব্যাকটেরিয়া সনাক্ত ও নির্মূল করার ক্ষমতা বাড়ায়।

আরও পড়ুন –  অ্যাডাল-২৯ (মূত্রনালীর সংক্রমণ)

আর ৮৭ (ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ) ঔষধের মূল উপাদান :
(১) ই-কোলি D30 (E-Coli D30)।
(২) স্কার্লাটিনাম D30 (Scarlatinum D30)।
(৩) গ্ল্যান্ডুলা থাইমি D30 (Glandulae Thymi D30)।
(৪) নিউমোকোকিনাম D30 (Pneumococcimum D30)।
(৫) সালমো-নেলা (Salmonella D30)।
(৬) প্রোটিয়াস মরগনি D30 (Proteus Morgani D30)।
(৭) সিউডোমোনাস D30 (Pseudomonas D30)।
(৮) স্ট্যাফাইলোকোকিনাম D30 (Staphylococcinum D30)।
(৯) স্ট্রেপ্টোকোকিনাম D30 (Streptococcinum D30)।
(১০) বোটুলিনাম D30 (Botulinum D30)।
(১১) টিউবারকুলিনাম D30 (Tuberculinum D30)।
(১২) হাইড্রাস্টিস ক্যানাডেনসিস D3 (Hydrastis Canadensis D3)।

আরও পড়ুন –  যোনিপথে বা জরায়ু মুখে ইচিনেস এর কারণ, লক্ষণ ও করণীয়

আর ৮৭ (ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ) কার্যকারিতা :
(ক) বোটুলিনাম (Botulinum), ই-কোলি (E-Coli), প্রোটিয়াস মরগনি (Proteus Morgani),  নিউমোকোকিনাম (Pneumococcinum), স্ট্যাফাইলোকোকিনাম (Staphylococcinum) , স্কার্লাটিনাম (Scarlatinum), টিউবারকুলিনাম (Tuberculinum), স্ট্রেপ্টোকোকিনাম (Streptococcinum ) : এই উপাদানগুলি একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ইমিউনাইজেশন ফর্মুলা যা শরীরের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই ইমিউনাইজেশনে সহায়তা করে।
(খ) গ্ল্যান্ডুলা থাইমি (Glandulae Thymi) : এই উপাদানটি থাইমাস গ্রন্থিকে উদ্দীপিত করে এবং এটি একটি শক্তিশালী ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে।
(গ) হাইড্রাস্টিস ক্যানাডেনসিস (Hydrastis Canadensis) : একটি শক্তিশালী প্রাকৃতিক অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল হিসাবে পরিচিত, হাইড্রাস্টিস ক্যানাডেনসিস শরীরের সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

আরও পড়ুন –  এইচআইভি এবং এইডস : কারণ, লক্ষণ, জটিলতা, হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা

আর ৮৭ অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল সংক্রমণের জন্য বিকল্প চিকিৎসা : 
প্রচলিত অ্যান্টিবায়োটিক : এগুলি ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের মানক চিকিৎসা, ব্যাকটেরিয়া মেরে বা তাদের বৃদ্ধি রোধ করে। আবার তারা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে এবং অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধে অবদান রাখতে পারে।
আর ৮৭ অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল প্রাকৃতিক প্রতিকার :
রসুন :  রসুন,  ইচিনেসিয়া এবং গোল্ডেনসালের মতো কিছু ভেষজ এবং পরিপূরকগুলিতে প্রাকৃতিক অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে এবং এটি ইমিউন সিস্টেমকে উন্নত করে।
প্রোবায়োটিকস : এই উপকারী ব্যাকটেরিয়াগুলি আপনার অন্ত্রের উদ্ভিদের প্রাকৃতিক ভারসাম্য পুনরুদ্ধার করতে সাহায্য করে, যা ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ এবং অ্যান্টিবায়োটিক চিকিৎসার সময় ব্যাহত হয় ।
প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা : ভাল স্বাস্থ্যবিধি অনুশীলন করতে হবে যেমন – নিয়মিত হাত ধোয়া ও অসুস্থ ব্যক্তিদের সাথে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ এড়ানো, ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে পারেন।
লাইফস্টাইল পরিবর্তন : অতিরিক্ত বিশ্রাম, হাইড্রেশন ও একটি পুষ্টিকর খাদ্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করতে পারে, যা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সাহায্য করে।

আরও পড়ুন – গনোরিয়া বা প্রমেহ ও হোমিওপ্যাথি ঔষধ

আর ৮৭ ঔষধ সেবন বিধি : প্রাপ্ত বয়স্করা জন্য ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা, শিশুরা ৭ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ ১/৪ কাপ পানিতে মিশিয়ে দিনে ৩ বার অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে। গর্ববতী নারীরা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুণ।
চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।
সতর্কতা : গর্ভবতী মা অথবা দুগ্ধদানকারী মায়েরা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করা উত্তম।
শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।
পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : এই ঔষধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।
ঔষধ সংরক্ষণ :  সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।
আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন।  এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।  সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন।  আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev