সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১১:৫৫ পূর্বাহ্ন

আর ৩৯ (পেটের বাম দিকে, ডিম্বাশয়ের স্নেহ, সিস্ট, টিউমার)

আরোগ্য হোমিও হল / ৩০ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ রবিবার, ৫ মে, ২০২৪, ৫:৫৯ অপরাহ্ন

Dr. Reckeweg R39 (পেটের বাম দিকে, ডিম্বাশয়ের স্নেহ, সিস্ট, টিউমার)

R 39 (left side of abdomen, ovarian affection, cyst, tumor)

আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো “ আর ৩৯ (পেটের বাম দিকে, ডিম্বাশয়ের স্নেহ, সিস্ট, টিউমার) ” কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়।

প্রস্তুত প্রণালী : Dr. Reckeweg R 39/ জার্মান কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।

আর ৩৯ ড্রপসটির ইঙ্গিত : আর ৩৯ ড্রপসটি ডিম্বাশয়ের স্নেহ (বাম দিকে), প্যারামেট্রিয়া, অ্যানেক্সেস, সিস্ট, প্রদাহ, টিউমারের প্রদাহ, অ্যানেক্সাইটিস, সালপিনাইটিস, প্যারামেট্রাইটিস এবং ডিম্বাশয়ের সিস্ট। আপনার অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে একবারের জন্য হলেও এই এটি সেবর করা উচিত। অপারেশনের পরে খারাপ সিকাট্রিজিংযরেও প্যারামেট্রিয়াম (বাম দিকে) স্নেহের চেষ্টা করা উচিত যদি আপনার ডান দিকটি আক্রান্ত হয়।

আর ৩৯ অ্যাবডোমেন ড্রপস সম্পর্কে ধারণা : আর ৩৯ ড্রপসটি হল এবটি হোমিওপ্যাথিক ওষুধ যা বেশ কিছু ঔষধ শিশ্রণ এই ড্রপগুলিতে পাওয়া যায় যা বাম পেটে ব্যথার চিকিৎসা করে। এটিতে ল্যাকেসিস (Lachesis), লাইকোপোডিয়াম (Lycopodium) ইত্যাদির মতো গুরুত্বপূর্ণ ঔষধ মিশ্রণ রয়েছে যা বাম দিকে ডিম্বাশয়ের স্নেহ, সিস্ট (ঝিল্লিযুক্ত থলি অথবা শরীরের অস্বাভাবিক চরিত্রের গহ্বর, তরলযুক্ত), প্রদাহ ও টিউমারগুলিতে কাজ করে।

আরও জানুন –  এইচ আর – ২৮ (টিউমারের চিকিৎসায় কার্যকর)

আর ৩৯ অ্যাবডোমেন ড্রপস ভূমিকা : পেটে ব্যথা শরীরের বুক ও শ্রোণী অঞ্চলের মধ্যে উৎপন্ন হয়। পেটে ব্যথা আড়ষ্ট, ব্যথা, নিস্তেজ, মাঝে মাঝে অথবা তীক্ষ্ণ ব্যথা হতে পারে। পেটের অঙ্গগুলিকে প্রভাবিত করার কারণে পেটে ব্যথার সাধারণ কারণ। বাম তলপেটে ব্যথা হল স্থানীয় ব্যথা যাহার উৎপত্তি ভিন্ন, যখন নীচের বাম পেটে ব্যথার কারণ যেমান -ডিম্বাশয়ের সিস্ট, অ্যাপেন্ডিসাইটিস, ক্যান্সার, কিডনি সংক্রমণ ইত্যাদির কারণে উপরের বাম পেটে ব্যথার কারণ হতে পারে। আবার মলদ্বারের আঘাত (কঠিন মল যা হতে পারে না নির্মূল), আঘাত, কিডনি সংক্রমণ, বর্ধিত প্লীহা, হার্ট অ্যাটাক অথবা ক্যান্সার ইত্যাদি।

আরও জানুন – কেন্ট ৬৬  (টিউমার ও ক্যান্সার রোগে কার্যকর)

বাম পেটে ব্যথার কারণগুলি হল : প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তিদের মধ্যে সাধারণ ডাইভার্টিকুলাইটিস বাম অন্ত্রের দেয়াল বরাবর ফুসকুড়ি গঠনের কারণে – জ্বর, ফোলা ও ডায়রিয়া ইত্যাদি। অবার কম ফাইবারযুক্ত খাবারের কারণে কোষ্ঠকাঠিন্য এবং টয়লেটে স্ট্রেনিং, মহিলাদের মধ্যে একটোপিক গর্ভাবস্থায় পেটের নীচের বাম অংশে ব্যথা হতে পারে।

আর ৩৯ ড্রপসটির উপাদান :
(১) ল্যাকেসিস D30 (Lachesis D30)।
(২) লাইকোপোডিয়াম D30 (Lycopodium D30)।
(৩) প্যালাডিয়াম D12 (Palladium D12)।
(৪) স্যাক্সিফ্রেজ D30 (Saxifraga D30)।

আরও জানুন –  এন – ০২ (গ্যাইনি সম্যাসা ড্রপস)

আর ৩৯ ড্রপসটির পৃথক উপাদানের কর্মের মোড : আর ৩৯ ড্রপসটির মূল বৈশিষ্ট্যগুলি বাম পেটে ব্যথার কারণগুলির চিকিৎসা জন্য নিম্নলিখিত উপাদানগুলি থেকে উদ্ভূত হয়েছে :

(ক) ল্যাচেসিস (Lachesis) : বাম পেটে খিঁচুনির মতো ব্যথার চিকিৎসা করে।

(খ) লাইকোপোডিয়াম (Lycopodium) : বাম পেটে ব্যথার কারণ যেমন – অবতরণ কোলনের চারপাশে খিঁচুনি ব্যথা ইত্যাদি।

(গ) প্যালাডিয়াম (Palladium) : এটি ডিম্বাশয়ের সিস্ট, প্রদাহ ও দীর্ঘস্থায়ী এবং তীব্র ব্যথার উপর কাজ করে।

(ঘ) স্যাক্সিফ্রেজ (Saxifraga) : বাম পাশের রেনাল ক্যালকুলির (কিডনির পাথর), অন্ত্রের ব্যথার চিকিৎসা করে।

আরও জানুন –  র‌্যাক্স নং- ১৮ (ডান কিডনী পাথর)

আর ৩৯ ঔষধ সেবন বিধি : প্রাপ্ত বয়স্করা জন্য ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা, শিশুরা ৭ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ ১/৪ কাপ পানিতে মিশিয়ে দিনে ৩ বার অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে। গর্ববতী নারীরা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুণ।

চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।

সতর্কতা : গর্ভবতী মা অথবা দুগ্ধদানকারী মারা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করা উত্তম।

শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।

আরও জানুন –   র‌্যাক্স নং- ৭৯ (ওভারিয়ান সিষ্ট)

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : হোমিওপ্যাথি সর্বোত্তম চিকিৎসা প্রদান করে কারণ এটি নিরাপদ এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মুক্ত।

ঔষধ সংরক্ষণ : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।

ঔষধের গুণগতমাণ : এটি একটি প্রাকৃতিক পণ্য, এটি কখনও কখনও সামান্য বৃষ্টিপাত অথবা মেঘলা হতে পারে, কিন্তু এটি পণ্যের গুণমান এবং এর কার্যকারিতা প্রভাবিত করে না। যদি এটি ঘটে তবে পণ্যটি ব্যবহার করার আগে ভালভাবে ঝাঁকি নিন। একবার আপনি সীলটি ভেঙে ফেললে, ওষুধগুলি দ্রুত ব্যবহার করা উচিত।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন। সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যতœবান হউন এবং সাবধানে থাকুন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev