সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০১:৩৪ অপরাহ্ন

আর ৬৬ (অনিয়মিত হার্ট বিট)

আরোগ্য হোমিও হল / ৬২ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২৪, ৮:৫২ পূর্বাহ্ন

Dr.Reckeweg R 66/  আর ৬৬ (অনিয়মিত হার্ট বিট)
R66 (irregular heart beat)
আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো “  আর ৬৬ (অনিয়মিত হার্ট বিট)” কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়।
প্রস্তুত প্রণালী : Dr.Reckeweg R 66/ জার্মান কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।
ব্যবহার : আর ৬৬ (অনিয়মিত হার্ট বিট) অনিয়মিত হৃদস্পন্দন, কার্ডিয়াক অ্যারিথমিয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়।
আর ৬৬ (অনিয়মিত হার্ট বিট) ইঙ্গিত :
আর ৬৬ ড্রপসটি বুকে ঝাঁকুনি, বুকে ব্যথা, অজ্ঞান হওয়া বা মাথা ঘোরা এবং শ্বাসকষ্টের লক্ষণগুলিতে কার্যকর। ডিজেনারেটিভ হার্ট ডিজিজ, পোস্ট মায়োকার্ডাইটিস ও এন্ডোকার্ডাইটিস, মায়োকার্ডিয়াল ইনফার্ক, টাকাইকার্ডিয়া, কার্ডিয়াক নিউরোসিস, অ্যাডাম-স্টোকস সিনড্রোমের পরে কার্ডিয়াক রিদম অথবা সঞ্চালনের ব্যাধিগুলিকে সম্বোধন করে।
বায়ো কম্বিনেশন ২৫ (অম্লতা, পেট ফাঁপা ও বদহজম)
আর ৬৬ অনিয়মিত হার্ট বিট ড্রপস সম্পর্কে ধারণা :
এটি হৃৎপিণ্ডের অনুপযুক্ত স্পন্দন তা অনিয়মিত, খুব দ্রুত অথাব খুব ধীরগতিন চিকিৎসা করে। এতে আইবেরিস আমরা, লিওনুরাস কার্ড ইত্যাদির মতো মূল উপাদান থকায় যা কার্ডিয়াক রিদম, ডিজেনারেটিভ হার্ট ডিজিজ, পোস্ট মায়োকার্ডাইটিস (হার্টের পেশীর প্রদাহ) ও এন্ডোকার্ডাইটিস (এন্ডোকার্ডিয়ামের প্রদাহ) এর ব্যাধিতে কার্যকর। এটি মায়োকার্ডিয়াল ইনফার্ক (রক্ত সরবরাহে ব্যর্থতার ফলে মৃত টিস্যুর ছোট স্থানীয় এলাকা), টাকাইকার্ডিয়া (অস্বাভাবিকভাবে দ্রুত হৃদস্পন্দন), কার্ডিয়াক নিউরোসিস (কার্যকর হার্টের অভিযোগ) এবং অ্যাডামস স্টোকস সিন্ড্রোম (হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে যাওয়া) ইত্যাদি চিকিৎসার জন্যও নির্দেশিত।

আরও পড়ুন –  অ্যাডাল-৪৩ (হার্টের দুর্বলতা ড্রপস)

আর ৬৬ (অনিয়মিত হার্ট বিট) অ্যারিথমিয়া ঠিক করে?
আপনি স্বাভাবিকভাবেই আর ৬৬ এর মতো হোমিওপ্যাথিক প্রতিকার দিয়ে অ্যারিথমিয়া ঠিক করা যাবে যা নিরাপদ এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ামুক্ত। হৃৎপিণ্ডের সঞ্চালন হৃৎপিণ্ডের দেয়ালে পাওয়া বিশেষ পেশী কোষের মাধ্যমে ঘটে যা বৈদ্যুতিক সংকেত পাঠায় হার্টের বাম এবং ডান দিকে একই সাথে ভ্রমণ করে। আর ৬৬ হৃৎপিণ্ডের সঞ্চালনের উন্নতির মাধ্যমে হৃৎপিণ্ডের ছন্দের সমস্যা সমাধান করে যা বৈদ্যুতিক সংকেত নিয়ন্ত্রণ করে ও হার্টের স্পন্দনকে নিয়মিত করে। এটি মায়োকার্ডিয়ামে অক্সিজেন সরবরাহের উন্নতি করে। প্রক্রিয়ায় অ্যাট্রিয়াল ফ্লাটার এবং ধড়ফড় সহ এনজাইনা মোকাবেলা করে। আর ৬৬ এর ক্রমাগত ব্যবহার রোগীদের পরবর্তী মায়োকার্ডিয়াল ইনফার্কশনের বর্ধিত ঝুঁকি কমায় যা অ্যাট্রিয়াল ফাইব্রিলেশনের কারণেই ঘটে।
আর ৬৬ (অনিয়মিত হার্ট বিট) মুল উপদান :
(১) আম্মি বিসনাগা D2 (Ammi. Visnaga D2)।
(২) আইবেরিস আমরা D3 (Iberis Amara D3)।
(৩) লিওনুরাস কার্ড D2 (Leonurus Card D2)।
(৪) ওলেন্ডার D3 (Oleander D3)।
(৫) স্পার্টিয়াম স্কোপেরিয়াম D2 (Spartium Scop D2)।
(৬) সুম্বুলাস মশাটাস D2 (Sumbulus Moschatus D2)।

আরও পড়ুন –  অ্যাডাল-৫৪ (হার্ট অ্যাটাকের পর ব্যবহার)

আর ৬৬ ড্রপসটির  পৃথক উপাদানের কর্মের মোড :
আর ৬৬ ড্রপসটির মূল বৈশিষ্ট্যগুলি হৃৎপিণ্ডের সমস্যার লক্ষণগুলির চিকিৎসার জন্য নিম্নলিখিত উপাদানগুলি থেকে উদ্ভূত হয়েছে :
(ক) আইবেরিস আমরা (Iberis Amara) : ধমনীতে ধড়ফড়ানি (অনিয়মিত হৃদস্পন্দন) সামান্য পরিশ্রম, স্নায়বিক উত্তেজনা এবং এনজাইনা (তীব্র বুকে ব্যাথা) ধমনী ফ্লাটার (হার্টের থিয়েট্রিয়াতে ঘটে এমন অস্বাভাবিক হৃদযন্ত্রের ছন্দ) এবং অনিয়মিত নাড়ির চিকিৎসা করে।
(খ) লিওনুরাস কার্ড (Leonurus Card) : এটির মায়োকার্ডিয়ামে টনিক প্রভাব রয়েছে যা সেন্ট্রাল সিডেশন দ্বারা অর্জিত হয়।
(গ) ওলেন্ডার (Oleander) : হৃৎপিণ্ডের সমস্যার লক্ষণ যেমন – ধড়ফড়, হার্টে ব্যথা ও অস্বাভাবিক নাড়ির হার্টের চিকিৎসা করে। এটি করোনারি রক্ত প্রবাহ বাড়ায় ও মায়োকার্ডিয়ামে অক্সিজেন সরবরাহ উন্নত করতে সাহায্য করে।

আরও পড়ুন –  এইচ আর – ৪৪ (হৃৎপিণ্ডের স্পন্দন নিয়ন্ত্রণে কার্যকর)

(ঘ) সুম্বুলাস মশাটাস (Sumbulus Moschatus) : সামান্য পরিশ্রম অথবা অনিয়মিত বা মিস করা হৃদস্পন্দনের ক্ষেত্রে হিংসাত্মক ও ধড়ফড়ের চিকিৎসা করে।
(ঙ) স্পার্টিয়াম (Spartium Scop) : এটি দ্রুত অনিয়মিত হৃদস্পন্দন ও অনুপস্থিত নাড়ির স্পন্দনের চিকিৎসা করে।
আর ৬৬ ঔষধ সেবন বিধি : প্রাপ্ত বয়স্করা জন্য ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা, শিশুরা ৭ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ ১/৪ কাপ পানিতে মিশিয়ে দিনে ৩ বার অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে। গর্ববতী নারীরা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুণ।
চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।

আরও পড়ুন –  কেন্ট ০৬ (হার্টের সমস্যয় কার্যকর)

সতর্কতা : গর্ভবতী মা অথবা দুগ্ধদানকারী মারা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করা উত্তম।
শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।
পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : হোমিওপ্যাথি সর্বোত্তম চিকিৎসা প্রদান করে কারণ এটি নিরাপদ এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মুক্ত।
ঔষধ সংরক্ষণ : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।
ঔষধের গুণগতমাণ : এটি একটি প্রাকৃতিক পণ্য, এটি কখনও কখনও সামান্য বৃষ্টিপাত অথবা মেঘলা হতে পারে, কিন্তু এটি পণ্যের গুণমান এবং এর কার্যকারিতা প্রভাবিত করে না। যদি এটি ঘটে তবে পণ্যটি ব্যবহার করার আগে ভালভাবে ঝাঁকি নিন। একবার আপনি সীলটি ভেঙে ফেললে, ওষুধগুলি দ্রুত ব্যবহার করা উচিত।
আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন।  এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।  সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন।  আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev