সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২:৩৪ অপরাহ্ন

আর ৫১ (থাইরয়েড-হাইপার ড্রপ)

আরোগ্য হোমিও হল / ৩৩ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২৪, ৫:৪৫ অপরাহ্ন
আর ৫১ (থাইরয়েড-হাইপার ড্রপ)

Dr. Reckeweg R 51/ আর ৫১ (থাইরয়েড-হাইপার ড্রপ)
R 51 (Thyroid-Hyper Drops)
আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো “ আর ৫১ (থাইরয়েড-হাইপার ড্রপ)” কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়।
প্রস্তুত প্রণালী : Dr. Reckeweg R 51/  জার্মান কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।
ব্যবহার : আর ৫১ হাইপারথাইরয়েড, গলগন্ড রোগে ব্যবহার করা হয়।
আর ৫১ ড্রপসটির ইঙ্গিত : থাইরিওটক্সিকোসিস, বেসিডো’স ডিজিজ, এক্সোফথালমিয়া, হাত কাঁপতে থাকা থাইরয়েড গ্রন্থির নেশা, গ্রেভস ডিজিজ (অটোইমিউন ডিসঅর্ডার ও হাইপারথাইরয়েডিজম অথবা অত্যধিক থাইরয়েডের কারণ হতে পারে), “গগল-আই”, ঘাম, অবশেষে ডায়রিয়া এবং বিষণ্নতা ইত্যাদি।
আর ৫১ হাইপারথাইরয়েড উপকারিতা : আপনার জীবনকে পুনরুজ্জীবিত করুন! থাইরয়েডের সুষম স্বাস্থ্যের দিকে একটি প্রাকৃতিক নিরাময় যাত্রা শুরু করুন। হাইপারথাইরয়েডিজম এবং থাইরোটক্সিকোসিসের উপসর্গ গুলির জন্য নির্ভুলতার সাথে তৈরি। আপনার অস্বস্তি দূর করতে, শক্তি পুনরুদ্ধার করতে এবং আপনার শরীরের বিপাকীয় প্রক্রিয়াগুলিতে ভারসাম্য ফিরিয়ে আনতে আর ৫১ ড্রপসের উপাদানগুলির একটি সুরেলা মিশ্রণ। থাইরয়েড রোগের ভারসাম্যহীনতাকে দুর করে এবং আরও আপনার স্বাস্থ্যকে প্রাণবন্ত করে তুলে।
আর ৫১ ড্রপস বিষাক্ত থাইরয়েডে :  আর ৫১ ড্রপস থাইরয়েড গ্রন্থিগুলির উপর একটি ডিটক্সিফিকেশন প্রভাব ফেলে। এতে বেলেডোনা, জোডাম ইত্যাদির মতো গুরুত্বপূর্ণ ঔষধ মিশ্রণ রয়েছে, যা হাইপারথাইরয়েডিজম (থাইরোটক্সিকোসিস), বেসেডো ডিজিজ (থাইরয়েড গ্রন্থির বৃদ্ধি, চোখের গোলাগুলির প্রাধান্য ও হৃৎপিণ্ডের অস্বাভাবিক ক্রিয়ার উপর কাজ করে। এটি এক্সোপথালমিয়া (চোখের বল ফুলে যাওয়া দ্বারা চিহ্নিত অবস্থা), হাত কাঁপানোর সাথে যুক্ত থাইরয়েড গ্রন্থিকে সম্বোধন করে। এটি ঘামের প্রক্রিয়া (ঘাম), অস্বাভাবিকভাবে পাতলা অথবা দুর্বল হওয়ার অবস্থা (ক্ষতিহীনতা) এবং ডায়রিয়ার জন্য এটি নির্দেশিত।

আরও পড়ুন –  অ্যাাডাল-৬ (থাইরয়েড)

আর ৫১ থাইরয়েড রোগ : থাইরয়েড হলে সাধারণত যে লক্ষণগুলি দেখা যায় যেমন – অস্বাভাবিক হৃদস্পন্দন, উচ্চ রক্তচাপ, গলগন্ডের বিকাশ, কোষ্ঠকাঠিন্য, মোটা এবং শুষ্ক চুল, বিষণ্ণতা, চুল পড়া, আঁশযুক্ত ও শুষ্ক ত্বক, মাসিক প্রবাহ বৃদ্ধি, পেশী ক্র্যাম্প, বিরক্তি, দুর্বলতা, ওজন হ্রাস ও বৃদ্ধি ইত্যাদি। থাইরয়েড হল মানব শরীরের বৃহত্তম অন্তঃস্রাবী গ্রন্থি। থাইরয়েড গ্রন্থি দ্বারা উৎপাদিত হরমোন মেজাজ, শক্তির মাত্রা এবং ওজনকে প্রভাবিত করে। এটি হতাশার কারণও। থাইরয়েড বিপাক, বিকাশ, তাপমাত্রা ও বৃদ্ধিকে প্রভাবিত করে এটি সারা শরীরে কাজ করে। থাইরয়েডের সাথে যুক্ত সাধারণ সমস্যা হল থাইরয়েড হরমোনের অস্বাভাবিক উৎপাদন। অতিরিক্ত হরমোন উৎপাদনের ফলে হাইপারথাইরয়েডিজম হয় ও অপর্যাপ্ত উৎপাদনের ফলে হাইপোথাইরয়েডিজম হয়। থাইরয়েডের অন্যান্য সমস্যার মধ্যে রয়েছে যেমন-  থাইরয়েড ক্যান্সার, গলগন্ড (থাইরয়েড গ্রন্থির বৃদ্ধি), থাইরয়েড নোডুলস (থাইরয়েড গ্রন্থিতে পিণ্ড) এবং থাইরয়েডাইটিস (থাইরয়েড ফুলে যাওয়া) ইত্যাদি।
আর ৫১ কম্বিনেশন ঔষধের উপাদান: 
(১) জোডাম D30 (Jodum D30)।
(২) ন্যাট্রিয়াম ক্লোরাটাম D30 (Natrum Chlorat D30)।
(৩) লাইকোপাস ভার্জিনিকাস D12 (Lycupus Virgin D12)।
(৪) ল্যাপিস অ্যালবাস D12 (Lapis Albus D12)।
(৫) বেলাডোনা D30 (Belladonna D30)।
(৬) হেকলা লাভা D12 (Hekla Lava D12)।

আরও পড়ুন –  অ্যাডাল-১৪  (আয়রনের ঘাটতি ও রক্তাল্পতা)

আর ৫১ ড্রপসটির উপাদানের কর্মের মোড :
(ক) জোডাম (Jodum ) : এটি থাইরয়েড গ্রন্থির হাইপার ফাংশনে কাজ করে যা আয়োডিনের অত্যধিক প্রভাবের কারণে এটি ঘটে। এই বিশেষ ক্ষেত্রে প্রতিকার হোমিওপ্যাথিক নয় বরং আইসোপ্যাথিক পদ্ধতিতে কাজ করে। ঐতিহ্যগত ভাবে বিভিন্ন স্বাস্থ্য অবস্থার চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়। এটি বিশেষ করে হাইপারথাইরয়েডিজমের মতো থাইরয়েডর সমস্যা গুলি মোকাবেলা করে। যেখানে রোগীর ভাল ক্ষুধা থাকা সত্ত্বেও অতিরিক্ত ঘাম, তাপ অসহিষ্ণুতা এবং ওজন হ্রাসের মতো লক্ষণগুলি পরিচালনা করতে সহায্য করে। ব্রঙ্কাইটিস এবং কাশি সহ শ্বাসকষ্টের সমস্যায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য উপকারী। বিশেষ করে যখন উষ্ণ ঘরে লক্ষণগুলি খারাপ হয় এবং ঠান্ডা বাতাসে উন্নতি হয়। এটি ফুলে যাওয়া গ্রন্থি ও ত্বকের নির্দিষ্ট অবস্থার চিকিৎসার জন্যও ব্যবহার করা হয়।
(খ) ন্যাট্রিয়াম ক্লোরাটাম  (Natrum Chlorat) : এটি উত্তেজনা, পরিশ্রম, অথবা অসুস্থতা (ধড়ফড়), দুর্বলতা এবং বিরক্তি, অনিয়মিত হৃদস্পন্দনে কার্যকর। এটি থাইরয়েডের কার্যকারিতার উপর প্রভাব ফেলে।
(গ) লাইকোপাস ভার্জিনিকাস (Lycupus Virgin) :  থাইরয়েড সমস্যার উপসর্গ যেমন – অস্বাভাবিক দ্রুত হৃদস্পন্দন (টাকিকার্ডিয়া) ও শক্তিশালী নাড়ির চিকিৎসা করে।
(ঘ) বেলাডোনা (Belladonna) :  শক্তিশালী নাড়ির চিকিৎসা করে। ঘাম এবং ‘গগল আই’ ফিট করে।
(ঙ) হেকলা লাভা (Hekla Lava) এবং ল্যাপিস অ্যালবাস (Lapis Albus ) : এটি ফাইব্রোজ স্ট্রমা গঠনের জন্য কার্যকর (তন্তুযুক্ত টিস্যুগুলির বৃদ্ধি করে)।

আরও পড়ুন –  এইচ আর – ৫৩ (থাইরয়েডের চিকিৎসায় কার্যকর)

আর ৫১ ঔষধটি সেবন বিধি :  প্রথম ৮ দিনে, প্রতিদিন সকাল-দুপুর- বৈকাল, রাত (৪ বার) খাবারের আগে ১০-১৫ ফোঁটা ঔষধ একঢোক পরিমাণমত পানি মিশিয়ে সেবন করতে হবে। কিছু উন্নতি হলে ৮ দিনের জন্য প্রতিদিন সকাল-দুপুর- রাত্রে। অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করুণ।
  এটা স্পষ্ট যে আয়োডিনযুক্ত লবণ অথবা আয়োডিনের যে কোনও ব্যবহার এবং সেইসাথে হরমোন (থাইরয়েড গ্রন্থি) ব্যবহার বন্ধ করা উচিত, কারণ এই খাবারগুলি তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি করতে পারে।
চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।
সতর্কতা : গর্ভবতী মা অথবা দুগ্ধদানকারী মারা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করা উত্তম।
শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।

আরও পড়ুন –  কেন্ট ৫৯ (গলগন্ড বা থাইরয়েডে কার্যকর)

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : হোমিওপ্যাথি সর্বোত্তম চিকিৎসা প্রদান করে কারণ এটি নিরাপদ এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মুক্ত।
ঔষধ সংরক্ষণ : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।
ঔষধের গুণগতমাণ : এটি একটি প্রাকৃতিক পণ্য, এটি কখনও কখনও সামান্য বৃষ্টিপাত অথবা মেঘলা হতে পারে, কিন্তু এটি পণ্যের গুণমান এবং এর কার্যকারিতা প্রভাবিত করে না। যদি এটি ঘটে তবে পণ্যটি ব্যবহার করার আগে ভালভাবে ঝাঁকি নিন। একবার আপনি সীলটি ভেঙে ফেললে, ওষুধগুলি দ্রুত ব্যবহার করা উচিত।
আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন।  এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।  সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন।  আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev