সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০১:২১ অপরাহ্ন

আর ৪৩ (হাঁপানি ড্রপ)

আরোগ্য হোমিও হল / ২৪ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ সোমবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২৪, ৫:২৫ অপরাহ্ন

Dr.Reckeweg R 43/ আর ৪৩ (হাঁপানি ড্রপ)

R 43 (Asthma Drops)

প্রস্তুত প্রণালী : Dr.Reckeweg R 43/ জার্মান কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।

ব্যবহার : আর ৪৩ হাঁপানি শ্বাসনালী হাঁপানি, স্প্যাস্টিক ব্রঙ্কাইটিসের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়।

আর ৪৩ হাঁপানি ড্রপটির উপকারিতা : আর ৪৩ ড্রপটি সাধারণত প্রাপ্তবয়স্কদের ও শিশুদের হাঁপানির লক্ষণগুলি চিকিৎসার জন্য নির্দেশিত। এটি একটি হোমিওপ্যাথিক ওষুধ যা বিভিন্ন হোমিওপ্যাথিক ভেষজগুলির মিশ্রণের সাথে এবং ড্রপ আকারে প্রস্তুত করা হয়েছে। এতে আর্সেনিক অ্যালবাম, বেলাডোনা ইত্যাদির মতো ঔষধ মিশ্রণ রয়েছে যা ব্রঙ্কিয়াল অ্যাজমা (শ্বাসতন্ত্রের প্রদাহজনিত রোগ, যা ব্রঙ্কিয়াল হাইপার প্রতিক্রিয়া ও শ্বাসযন্ত্রের বাধা দ্বারা চিহ্নিত করা হয়) এবং স্পাস্টিক ব্রঙ্কাইটিস (অ্যাস্থমা) এর উপর কাজ করে। এটি ব্রঙ্কিয়াল হাঁপানিয় চিকিৎসা ব্যবহার হয়।।

আর ৪৪ ড্রপটির ইঙ্গিত : এটি ব্রঙ্কিয়াল অ্যাজমা ও স্পাস্টিক ব্রঙ্কাইটিস, ব্রঙ্কিয়াল হাঁপানির সাংবিধানিক চিকিৎসা করে।

আর ৪৩ ড্রপটির ভূমিকা : প্রাপ্তবয়স্ক ব্যাক্তি এবং শিশুদের হাঁপানির লক্ষণগুলি হল শ্বাসকষ্ট, কাশি, শ্বাসকষ্ট ও বুকে শক্ত হওয়া ইত্যাদি। হাঁপানি বলতে সাধারণ দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহজনিত রোগকে বোঝানো হয়েছে। যেটি শ্বাসনালী সরু হয়ে যাওয়া এবং ফুলে যাওয়া ও অতিরিক্ত শ্লেষ্মা তৈরি হয়। এতে শ্বাস নিতে অসুবিধা হয়। হাঁপানিকে প্রতিক্রিয়াশীল এয়ারওয়ে ডিজিজ অথবা ব্রঙ্কিয়াল অ্যাজমাও বলা হয়। যাদের অ্যাজমা অথবা অ্যালার্জির পারিবারিক ইতিহাস রয়েছে তাদের হাঁপানি আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি। প্রাপ্তবয়স্কদের ও শিশুদের মধ্যে হাঁপানির লক্ষগুলি আবহাওয়া, অসুস্থতা, অ্যালার্জেনের সংস্পর্শে, ফ্লু বা ব্যায়ামের কারণেও হতে পারে। হাঁপানির প্রাথমিক লক্ষণগুলির হল – ঘন ঘন কাশি, ক্লান্তি, শ্বাসকষ্ট, মেজাজের পরিবর্তন, ঘুমের সমস্যা ইত্যাদি। হাঁপানি মানসিক চাপও সৃষ্টি করতে পারে।

আরও পড়ুন –  অ্যাডাল-১০ (হাঁপানি, ব্রংকাইটিস)

আর ৪৩ ড্রপটির মুল উপকরণ :
(১) আর্সেনিক অ্যালবাম D8 (Ars Alb D8)।
(২) ইয়ারবা সান্তা D12 (Yerba Santa D12)।
(৩) কার্বো ভেজ D30 (Carbo Veg D30)।
(৪) ক্যালি ফস D30 (Kali Phos D30)।
(৫) ন্যাট্রিয়াম ক্লোরাটাম D30 (Nat Chlor D30)।
(৬) নেট্রাম সালফিউরিকাম D30 (Nat Sulf. D200)।
(৭) বেলেডোনা D30 (Belladonna D30)।
(৮) ব্রায়োনিয়া D12 (Bryonia D12)।
(৯) ভেরাট্রাম অ্যালবাম D30 (Veratrum Alb D30)।
(১০) হাইপোফাইসিস D30 (Hypophysis D30)।

আরও পড়ুন –   বায়ো কম্বিনেশন ২ (হাঁপানি এবং অ্যাজমা)

আর ৪৩ ড্রপসটির পৃথক উপাদানের কর্মের মোড :
আর ৪৩ ড্রপসটির এর মূল বৈশিষ্ট্যগুলি প্রাপ্তবয়স্ক ব্যাক্তি এবং শিশুদের মধ্যে হাঁপানির লক্ষণগুলির চিকিৎসার জন্য নিম্নলিখিত উপাদানগুলি থেকে নেওয়া হয়েছে।

(ক) আর্সেনিক অ্যালবাম (Ars Alb) : তীব্র অস্থিরতা, ছটপটানি এবং উদ্বেগের চিকিৎসা করে।

(খ) ইয়ারবা সান্তা (Yerba Santa) : এটি হাঁপানি, ব্রঙ্কাইটিস (ব্রঙ্কিয়াল টিউবে শ্লেষ্মা ঝিল্লির প্রদাহ) এবং কফ ও কাশি ইত্যাদির চিকিৎসা করে।

(গ) ক্যালি ফস (Kali Phos) : এটি শক্তিশালী করার জন্য ক্লান্তির চিকিত্সা করে এবং স্নায়ুর জন্য পুষ্টিকর প্রতিকার হিসাবে কাজ করে।

(ঘ) ন্যাট্রিয়াম ক্লোরাটাম (Nat Chlor) : এটি কনভালসিক শুষ্ক কাশি এবং শ্লেষ্মা ঝিল্লির জ্বালা নিরাময় করে। হাইপারথাইরিওটিক ধরণের সাথে সাংবিধানিক চিকিৎসা করে।

আরও পড়ুন –  এইচ আর -৩৪ ( ব্রঙ্কাইটিস -হাঁপানির চিকিৎসায় কার্যকর)

(ঙ) নেট্রাম সালফিউরিকাম (Nat Sulf) : এটি হাইড্রোজেনয়েড (অতিরিক্ত পানি সহ্য করা যায় না) সংবিধানের সাংবিধানিক প্রতিকার হিসাবে কাজ করে। স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়ায় (কুয়াশা) আরও খারাপ হয়।

(চ) বেলেডোনা (Belladonna) : এটি ঘাম (ঘাম) সহ কাশির ক্ষেত্রে হাঁপানির (অ্যান্টি-অ্যাজমাটিক) বিরোধী হিসাবে কাজ করে।

(ছ) ব্রায়োনিয়া (Bryonia) : প্রাপ্তবয়স্কব্যাক্তি এবং শিশুদের হাঁপানির লক্ষণগুলি হল – শুষ্ক কাশিতে জ্বালা, কষ্টকর কফ (কাশি বা হাকিং এবং থুথু দিয়ে গলা অথবা ফুসফুস থেকে বের হওয়া) এবং তাজা বাতাস শ্বাস নেওয়া, পরিশ্রমে দমবন্ধ হওয়ার চিকিৎসা করে।

(জ) ভেরাট্রাম অ্যালবাম (Veratrum Alb) : এটি হাঁপানির ফিট এবং ঠান্ডা ঘামের চিকিৎসা করে।

(ঝ) হাইপোফাইসিস (Hypophysis) : এটি হাইপোফাইসিসকে উদ্দীপিত করে যা এটি পিটুইটারি গ্রন্থির সাথে সম্পর্কিত।

আরও পড়ুন –   কেন্ট ০১ (হাঁপানি বা এজমা রোগে কার্যকর)

আর ৪৩ ঔষধটি সেবন বিধি :  দীর্ঘস্থায়ী নিরাময় জন্য খাবারের আগে প্রতিদিন সকাল-দুপুর-বৈকালে ১০ থেকে ১৫ ফোঁটা ঔষধ একঢোক জলে মিশিয়ে খান।
তীব্র বিরতিহীন ব্যথা ও বৃদ্ধির ক্ষেত্রে, অল্প সময়ের জন্য ১০ থেকে ১৫ ফোঁটা ঔষধ (১/২ থেকে ১ ঘন্টা) পর সেবন করতে হবে। পুনরাবৃত্তি এড়াতে কমপক্ষে ৩ মাসের জন্য সকাল-রাতে ৫ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ একঢোক পানিতে মিশিয়ে সেবন করতে হবে। অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের নির্দেশ মেনে সেবন করুণ।
চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।
সতর্কতা : গর্ভবতী মা অথবা দুগ্ধদানকারী মারা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করা উত্তম।

আরও পড়ুন –  এন – ৭৬ হাঁপানীর (এ্যাজমা) রোগে কার্যকর

শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।
পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : হোমিওপ্যাথি সর্বোত্তম চিকিৎসা প্রদান করে কারণ এটি নিরাপদ এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মুক্ত।
ঔষধ সংরক্ষণ : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।
ঔষধের গুণগতমাণ : এটি একটি প্রাকৃতিক পণ্য, এটি কখনও কখনও সামান্য বৃষ্টিপাত অথবা মেঘলা হতে পারে, কিন্তু এটি পণ্যের গুণমান এবং এর কার্যকারিতা প্রভাবিত করে না। যদি এটি ঘটে তবে পণ্যটি ব্যবহার করার আগে ভালভাবে ঝাঁকি নিন। একবার আপনি সীলটি ভেঙে ফেললে, ওষুধগুলি দ্রুত ব্যবহার করা উচিত।
আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন।  এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।  সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন।  আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev