মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন

সদ্যেজাত শিশু মৃত কল্প হওয়া

আরোগ্য হোমিও হল / ২৫২ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ শনিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২২, ৭:২১ পূর্বাহ্ন

সদ্যেজাত শিশু মৃত কল্প হওয়া
পারিবারিক চিকিৎসা থেকে নেওয়া

ডা: এম ভট্রাচার্য্য

সদ্যেজাত (বা ভুমিষ্ঠ) মৃতকল্প। শিশু মৃতবৎ ভুমিষ্ঠ হইলে তৎক্ষণাৎ তাহার মুখে মুখ লাগাইয়া ফুঁ দিলে বা অন্য কোন কৌশলে তাহার ফুসফুসে বায়ু প্রবেশ করাইয়া দিতে পারিলে, শিশু বাঁচিয়া যাইতে পারে। প্রসৃতি সিফিলিস, ডায়াবেটিস প্রভৃতি রো গ্রস্ত থাকিলে বা তাহার ফুলে (Placenta) রক্তস্বপ্লতা থাকিলে কিম্বা শিশু দীর্ঘকাল প্রসব-বেদনায় ভুগিলে অথবা অন্যান্য নানাকারণে মৃতবৎ শিশু ভুমিষ্ঠ হইতে পারে। রক্ত সঞ্চালন যন্ত্রের ক্রিয়া রুদ্ধ হইয়া শ্ব স-প্রশ্বাস লোপ পায় এবং শিশু কাঁদে না। এই অবস্থায় নিন্ম লিখিত প্রাণালী অবলম্বনীয় : শিশুর গলায় যদি নাভিনাড়ী বিজাড়িত থাকে, তাহা হইলে উহা সত্বও খুলিয়া ফেলা আবশ্যক। শিশু ভুমিষ্ট হইবামাত্রই যদি নাভি-নাড়ী স্পন্দিত হইতে থাকে, তাহা হইলে তাহা না কাটিয়া মুখ ও গলার মধ্যে যে সমস্ত শ্লেম্মা ও ক্লেদ থাকে তাহা সত্বর পরিস্কার করা দরকার।

কিন্ত নড়ীর স্পন্দন না থাকিলে তৎক্ষণাৎ নাভি-নাড়ী বাঁধা কর্তব্য। পরে শিশুর পদদ্বয় এবং হস্ত ধরিয়া তাহার মস্তক নীচের দিকে ঝুলাইয়া অপর হস্তদ্বার তাহার মেরুদণ্ডের কিছু ব্র্যাণ্ডি মালিশ করিলে আরও উপকার পাওয়া যায়। এতদ্বাতীত মুকে ঠান্ডা জলের ঝাপটা দিলেও উপকার পাওয়া যায়। যদি ইহাতেও শ্বাস-প্রশ্বাস ক্রিয়া আরম্ভ না হয়, তাহা হইলে শিশুর দেহ গরম জলে নিমজ্জিত করিয়া বক্ষ:প্রাচীর পর্য্যায়ক্রমে প্রসারিত ও সংকুচিত করিয়া শ্বাস-প্রশ্বাস ক্রিয়া প্রবর্ত্তনের চেষ্টা করা কর্তব্য। ইহার সর্ব্বপেক্ষা ভাল উপায় এই শিশুকে চিৎভাবে গরম জলে শায়িত করিয়া (মুখমণ্ডল বাহিরে রাখিয়া) পরে তাহার দুই হস্ত ধীরে ধীরে তুলিয়া কর্ণেন পার্শ্বে আনিয়া আবার ধীরে ধীরে বক্ষের পাশ্বের নামাইয়া বক্ষের উপর মৃদ্যু সষ্ণাপ প্রদান। এই রুপ প্রক্রিয়া মিটিটে প্রায় ১০ বার সম্পাদনীয়। এই কার্য্যগুলি অতি সতর্কতা ও সহিষ্ণুতার সহিত করা বিধেয়। এই উপায় অবলম্বনে অনেক শিশু মৃত্যুবৎ ভুমিষ্ঠ হইবার দুই-তিন ঘন্টা পরেও শ্বাস গ্রহণে সমর্থ হইয়াছে। অক্সিজের নাসারন্ধে প্রবেশ প্রবেশ করাইয়াও কোন কোন স্থলে শ্বাস-প্রশ্বাসের ক্রিয়া আনয়ন করিতে পারা গিয়াছে। জীবনের কোন লক্ষণ অনুভুত না হইলে ওপিয়াম ৩০ বা অ্যান্টিম-টার্ট ৩০ এবং অস্ত্রপ্রোয়োগ সাহায্যে ভুমিষ্ঠ শিশু বৃতবৎ লক্ষণে হইলে – আর্ণিকা ৩ বা ৩০, শিশুর জিহ্বাগেই দুই-তিন মাত্রা প্রোয়োগে উপকার হয়ে থাকে।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : এ ওয়েব সাইটের মুল উদ্দেশ্যে হচ্ছে স্বাস্থ্য সম্পের্ক কিছু দান করা বা তুলে ধরা। সাধারণ মনুষের উপকার হবে। বিশেষ করে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক ও ছাত্ররা উপকৃত হবেন। এ ওয়েব সাইটে থাকছে পুরুষ স্বাস্থ্য বা যৌনস্বাস্থ্য, গাইনি স্বাস্থ্য, শিশুস্বাস্থ্য, মাদার টিংচার, সিরাপ, বম্বিনেশন ঔষধ, বাইকেমিক ঔষধ, হোমিওপ্যাথিক বই, ইউনানি, হামদর্দ, হারবাল, ভেজষ, স্বাস্থ্য কথা ইত্যাদি। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।

 


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev