শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৫০ অপরাহ্ন

এইচ আর – ৩৮ (সেরা অনাক্রম্যতা বুস্টার)

আরোগ্য হোমিও হল / ৮৯ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ বুধবার, ৪ অক্টোবর, ২০২৩, ৬:২৪ অপরাহ্ন
এইচ আর - ৩৮ (সেরা অনাক্রম্যতা বুস্টার)

এইচ আর – ৩৮ (সেরা অনাক্রম্যতা বুস্টার)

ক্যাটাগরি : কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথিক ঔষধ, পাকিস্তান।

প্রস্তত প্রণালী : এইচআর মাসুদ/হোমিওপ্যাথিক ফার্মাকোপিয়া অনুযায়ী প্রস্তুত।

ব্যবহার : এইচ আর – ৩৮ অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, অ্যান্টি-টক্সিন এবং ইমিউনিটি স্টিমুলেটর হিসাবে ব্যবহার করা হয়।এইচ আর – ৩৮ ঔষধের বর্ননা :

ক/ এইচ আর – ৩৮ হল সেরা অনাক্রম্যতা বুস্টার।

খ/ দীর্ঘস্থায়ী ডায়রিয়া এবং সাধারণ দুর্বলতায় ব্যবহার করা হয়।

গ/ হৃদরোগ এবং ক্যান্সার প্রতিরোধে ব্যবহার করা হয়।

ঘ/ রক্ত কোন বিষাক্ততা প্রবশে করলে দূর করতে সাহায্য করে।

ঙ/ রক্তল্পতা এবং অলস রোগীদের জন্য ব্যবহার করা হয়।

চ/ বয়স সম্পর্কিত ব্যাধিতে ব্যবহার করা হয়।

আরও পড়ুন – পডোফাইলাম Q

এইচ আর – ৩৮ ঔষধের ভূমিকা :  অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট: অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হল এমন এক পদার্থ যা মুক্ত র‌্যাডিকেল, অস্থির অণু যা পরিবেশগত ও অন্যান্য চাপের প্রতিক্রিয়া হিসাবে মানব শরীর উৎপন্ন করে কোষের ক্ষতি প্রতিরোধ করে বা ধীরগতিতে করতে পারে। তাদের মাঝে মাঝে “ফ্রি-র‌্যাডিক্যাল স্কেভেঞ্জার” বলা হয়। সুপরিচিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির মধ্যে রয়েছে – এনজাইম এবং অন্যান্য পদার্থ যেমন – ভিটামিন সি, ভিটামিন ই ও বিটা ক্যারোটিন, যা অক্সিডেশনের ক্ষতিকর প্রভাবগুলিকে প্রতিরোধ করে। বায়ুর ক্রিয়া থেকে তাদের ক্ষয় প্রতিরোধ করতে বা বিলম্বিত করতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলি সাধারণত উদ্ভিজ্জ তেল ও প্রস্তুত খাবারের মতো খাদ্য পণ্যগুলি যোগ করে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে পারে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট স্পষ্টভাবে বয়স-সম্পর্কিত ম্যাকুলার অবক্ষয়ের অগ্রগতি ধীর করতে সক্ষম।

অ্যান্টি-টক্সিন : “একটি অ্যান্টিবডি যা একটি বিষের বিরুদ্ধে সাধারণত প্রতিরোধ করে” ডিপথেরিয়া, গ্যাস গ্যাংগ্রিন বা টিটেনাসের মতো একটি নির্দিষ্ট জৈবিক টক্সিনের প্রতিক্রিয়া হিসাবে উৎপাদিত এবং নিরপেক্ষ করতে সক্ষম এটি একটি অ্যান্টিবডি। অ্যান্টিটক্সিন প্রতিরোধমূলক এবং থেরাপিউটিক হিসাবে ব্যবহার করা হয়।

এইচ আর – ৩৮ ঔষধের ইঙ্গিত : ইমিউনোডেফিসিয়েন্সি ডিসঅর্ডারগুলি শরীরে পর্যাপ্তভাবে সংক্রমণ এবং রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে বাধা দেয়। একটি এটি ইমিউনোডেফিসিয়েন্সি ডিসঅর্ডারও প্রথমে আপনার জন্য ভাইরাস এবং ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ ধরা সহজ করে। দুর্বল ইমিউন সিস্টেমের লক্ষণ হল – দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থতা, যার মধ্যে পিঙ্কি, সাইনাস সংক্রমণ, সর্দি, বা ডায়রিয়া, বারবার নিউমোনিয়া এবং ইস্ট সংক্রমণ ইত্যাদি।

আরও পড়ুন – র‌্যাক্স নং- ৫৬ (আমাশয়)

এইচ আর – ৩৮ ঔষধ সেবন বিধি : ২০ ফোঁটা ঔষধ একঢোক সমপরিমান পানির সাথে শিশিয়ে প্রতি ৬ ঘন্টা পর পর সেবন করতে হবে। শিশুরা ৫ ফোঁটা ঔষধ একঢোক সমপরিমান পানির সাথে শিশিয়ে প্রতি ৬ ঘন্টা পর পর সেবন করতে হবে। সুস্থ হলে প্রতিদিন ৩ বার সেবন করুন। অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করুন।

বিশেষে দ্রষ্টব্য : চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোন ঔষধ খাবেন না এতে শারীরিক ও মানুষিক ক্ষতি হতে পারে। ঔষধ সেবনে পুর্বে একজন রেজিষ্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করুণ। লক্ষণগুলি অব্যাহত থাকলে, আপনার চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করুন।

বিশেষ সর্তকর্তা : গর্ভবতী মহিলারা রেজিষ্টর্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ঔষধ সেবন সম্পন্ন নিষেধ।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : এইচ আর – ৩৮ ঔষধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া জানা নাই।

ঔষধ সংরক্ষণ : সুগন্ধ-দুগন্ধ থেকে দুরে, শীতল ও শুস্ক স্থানে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : এ ওয়েব সাইটের মুল উদ্দেশ্যে হচ্ছে স্বাস্থ্য সম্পের্ক কিছু দান করা বা তুলে ধরা। সাধারণ মনুষের উপকার হবে। বিশেষ করে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক ও ছাত্ররা উপকৃত হবেন। এ ওয়েব সাইটে থাকছে পুরুষ স্বাস্থ্য বা যৌনস্বাস্থ্য, গাইনি স্বাস্থ্য, শিশুস্বাস্থ্য, মাদার টিংচার, সিরাপ, বম্বিনেশন ঔষধ, বাইকেমিক ঔষধ, হোমিওপ্যাথিক বই, ইউনানি, হামদর্দ, হারবাল, ভেজষ, স্বাস্থ্য কথা ইত্যাদি। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev