সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১২:৪৯ অপরাহ্ন

এইচ আর – ১৫ (ইউরিক অ্যাসিডে কার্যকর)

আরোগ্য হোমিও হল / ৬১ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২৩, ৫:১৮ অপরাহ্ন

এইচ আর – ১৫ (ইউরিক অ্যাসিডে কার্যকর)

ক্যাটাগরি : কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথিক ঔষধ, পাকিস্তান।

প্রস্তত প্রণালী : এইচআর মাসুদ/হোমিওপ্যাথিক ফার্মাকোপিয়া অনুযায়ী প্রস্তুত।

ব্যবহার : এইচ আর – ১৫ (GOUTEK) গাউট এবং অতিরিক্ত ইউরিক অ্যাসিডের চিকিৎসায় কার্যকর।

এইচ আর – ১৫ ইউরিক অ্যাসিডে বর্ণনা :

ক/ ছোট এবং বড় জয়েন্টগুলোতে প্রদাহ ব্যবহার করা হয়।

খ/ শরীরে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

গ/ যৌথ কোমলতা এবং দৃঢ়তা জন্য কার্যকরী।

ঘ/ ক্লান্তি ও শরীরের ব্যথা নিয়ন্ত্রণ করে।

ঙ/ জয়েন্ট ধ্বংস এবং জয়েন্ট বিকৃতি প্রতিরোধে সাহায্য করে।

চ/ ১৫ গাউট এবং অত্যধিক ইউরিক অ্যাসিডের চিকিৎসায় কার্যকরী।

এইচ আর – ১৫ ইউরিক অ্যাসিডের ভূমিকা :
গাউট হল এক ধরনের আর্থ্রাইটিস। বিশেষ করে জয়েন্টগুলোতে ইউরিক অ্যাসিড ক্রিস্টাল জমা হওয়ার কারণে হয়। ইউরিক অ্যাসিড হল পিউরিনের একটি ভাঙ্গন পণ্য যা আমাদের খাওয়া অনেক খাবারের একটি অংশ। এটি প্রদাহজনক আর্থ্রাইটিসের সবচেয়ে সাধারণ এক প্রকার। এটি পুরুষ এবং মহিলাদের উভয়ের বয়স বৃদ্ধির সাথে আরও সাধারণ হয়ে উঠতে পারে।

এইচ আর – ১৫ ইউরিক অ্যাসিডের বা গাউটের প্রকারভেদ :

১/ তীব্র গেঁটেবাত : সাধারণত তীব্র গেঁটেবাত হয় বিশেষ করে যখন হাইপারইউরিসেমিয়ার কারণে একটি জয়েন্টে ইউরিক অ্যাসিড স্ফটিক তৈরি হয়। তখন এটি তীব্র ব্যথা এবং ফোলা সৃষ্টি করে।

২/ ইন্টারভাল গাউট : ইন্টারভাল গাউট হল তীব্র গাউট আক্রমণের মধ্যবর্তী সময়কালকে বলা হয়। সাধারণত একে ইন্টারক্রিটিকাল গাউটও বলা হয়। এই পর্যায়ে রোগীর কোন উপসর্গ থাকে না।

৩/ দীর্ঘস্থায়ী টফেসিয়াস গাউট : দীর্ঘস্থায়ী টফেসিয়াস গাউট হতে পারে যদি কোন গাউটের চিকিৎসা না করা হয়। এই পর্যায়ে, হার্ড নোডুলস (টফি) জয়েন্টগুলোর চারপাশের ত্বক এবং নরম টিস্যুতে বিকাশ লাভ করে। কানের মতো শরীরের অন্যান্য অংশেও টফি বিকশিত হতে পারে। বিশেষ করে তারা জয়েন্টগুলোতে স্থায়ী ক্ষতি হতে পারে।

এইচ আর – ১৫ গাউট বা উচ্চ ইউরিক অ্যাসিডের কারণ :

ক/ শরীরে ইউরিক অ্যাসিডের উচ্চ মাত্রা বৃদ্ধি।

খ/ বংশগত ইতিহাস বা গাউটের পারিবারিক ।

গ/ কিছু ওষুধ, যা শরীরে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা বাড়াতে পারে

ঘ/ ক্রমাগত লাল মাংস বা সামুদ্রিক খাবার সমৃদ্ধ খাদ্য গ্রহণ করা।

ঙ/ অত্যধিক অ্যালকোহলের আধিপত্য

চ/ অনাহার ও পানিশূন্যতা

ছ/ কেমোথেরাপি ।

এইচ আর – ১৫ গাউটের সাধারণ লক্ষণ :

১/ একটি নির্দিষ্ট জয়েন্টে হঠাৎ তীব্র ব্যথা, ভোরে বা মধ্যরাতে ব্যথা।

২/ যৌথ কোমলতা।

৩/ আক্রান্ত জয়েন্টগুলোতে উষ্ণতার অনুভূতি।

৪/ জয়েন্টে শক্ততা।

৫/ জয়েন্টগুলোতে ফোলা।

এইচ আর – ১৫ গাউটের ইঙ্গিত: গাউট একটি জটিল সিন্ড্রোম। রক্তে ইউরিক অ্যাসিড বশি হলে গেঁটেবাত নিয়ে আসে। ইউরিক অ্যাসিড সাধারণত দুটি জায়গা থেকে আসে, যা শরীর দ্বারা উৎপন্ন হয়। পিউরিন সমৃদ্ধ খাবার যেমন – সামুদ্রিক খাবার, মাংস ইত্যাদি থেকে। এই খাবারগুলি অতিরিক্ত ইউরিক অ্যাসিড কিডনি থেকে ফিল্টার করে এবং প্রস্রাবে চলে যায়। যদি শরীর প্রচুর ইউরিক অ্যাসিড উৎপান্ন হয় এবং এটি যদি নির্গত করতে ব্যর্থ হয় তবে স্ফটিক তৈরি হয় ও জয়েন্ট এবং টেন্ডনে ঘনীভূত হয়। এতে জয়েন্টগুলোতে ফোলাভাব, চাপ এবং তীব্র ব্যথা হয়। এইচ আর – ১৫ রক্তে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, শরীর থেকে অতিরিক্ত ইউরিক অ্যাসিড বের করে দেয়। এটি ব্যথানাশক হিসেবেও কাজ করে এবং দ্রুত ব্যথা থেকে মুক্তি দিতে পারে।

এইচ আর – ১৫ ঔষধ সেবন বিধি : ২০ ফোঁটা ঔষধ একঢোক সমপরিমান পানির সাথে শিশিয়ে প্রতি ৬ ঘন্টা পর পর সেবন করতে হবে। শিশুরা ৫ ফোঁটা ঔষধ একঢোক সমপরিমান পানির সাথে শিশিয়ে প্রতি ৬ ঘন্টা পর পর সেবন করতে হবে। সুস্থ হলে প্রতিদিন ৩ বার সেবন করুন। অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করুন।

বিশেষে দ্রষ্টব্য : চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোন ঔষধ খাবেন না এতে শারীরিক ও মানুষিক ক্ষতি হতে পারে। ঔষধ সেবনে পুর্বে একজন রেজিষ্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করুণ। লক্ষণগুলি অব্যাহত থাকলে, আপনার চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করুন।

বিশেষ সর্তকর্তা : গর্ভবতী মহিলারা রেজিষ্টর্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ঔষধ সেবন সম্পন্ন নিষেধ।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : এইচ আর – ১৫ ঔষধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া জানা নাই।

ঔষধ সংরক্ষণ : সুগন্ধ-দুগন্ধ থেকে দুরে, শীতল ও শুস্ক স্থানে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : এ ওয়েব সাইটের মুল উদ্দেশ্যে হচ্ছে স্বাস্থ্য সম্পের্ক কিছু দান করা বা তুলে ধরা। সাধারণ মনুষের উপকার হবে। বিশেষ করে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক ও ছাত্ররা উপকৃত হবেন। এ ওয়েব সাইটে থাকছে পুরুষ স্বাস্থ্য বা যৌনস্বাস্থ্য, গাইনি স্বাস্থ্য, শিশুস্বাস্থ্য, মাদার টিংচার, সিরাপ, বম্বিনেশন ঔষধ, বাইকেমিক ঔষধ, হোমিওপ্যাথিক বই, ইউনানি, হামদর্দ, হারবাল, ভেজষ, স্বাস্থ্য কথা ইত্যাদি। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev