শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০২:৪৭ অপরাহ্ন

অ্যাডাল-৬৫ (ভাইরাল জ্বর)

আরোগ্য হোমিও হল / ১১৪ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ শুক্রবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪, ৬:২৪ অপরাহ্ন
অ্যাডেল নং - ৬৫ (ভাইরাল জ্বর)

Adel – 65 (Viral fever)।

অ্যাডাল-৬৫ (ভাইরালজ্বর)

আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো “অ্যাডাল নং ৬৫ (ভাইরাল ফিভার জ্বর)” কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়।

প্রস্তুত প্রণালী :  জার্মান কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।

ব্যবহার : সংক্রমণের কারণে সৃষ্টি ভাইরাল জ্বরে ব্যবহার হয়।

অ্যাডাল নং – ৬৫ কেম্বিনেশন হোমিও ঔষধের লক্ষণ : জ্বর অন্তর্নিহিত সংক্রমণের কারণে সৃষ্টি সমস্ত ধরণের জ্বরের (নিম্ন/উচ্চ গ্রেড) জন্য সহায়ক প্রতিকার হিসাবে ব্যবহার হয়। কাঁপুনি সহ প্রাথমিক জ্বর, শরীরের সর্বত্র তীব্র তাপ প্রদাহ, সময়ে প্রচণ্ড অস্থিরতা, শরীরের সর্বত্র যেমন, জ্বালাপোড়া উপশম করে। ছুরিকাঘাতের মতো ব্যথা। এটি ইনফ্লুয়েঞ্জা, ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়ার মতো তীব্র জ্বরের চিকিৎসায় ব্যবহার করা হয়।

অ্যাডাল – ৬৫ কম্বনেশন হোমিঔপ্যাথি ঔষধের উপকারিতা : অন্তর্নিহিত সংক্রমণ দ্বারা সৃষ্ট সব ধরনের জ্বরের (নিন্ম/উচ্চ গ্রেড) জন্য সহায়ক প্রতিকার হিসাবে কাজ করে যেমন – ইনফ্লুয়েঞ্জা, ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়ার মতো তীব্র জ্বরের চিকিৎসায় কার্যকর।

আরও পড়ুন – এইচ আর – ১১ (উচ্চ রক্তচাপের চিকিৎসায় কার্যকর)

অ্যাডাল – ৬৫ (ভাইরাল ভিভার জ্বর) ঔষধের লক্ষণ :
(১) আর্সেনিক অ্যালবাম 6x (Arsenic album 6x)।
(২) অ্যাকোনাইট নেপেলাস 8x (Aconite Naples 8x)।
(৩) আর্জেন্টাম নাটাইট্রিুকাম 8x (Argentum natitirukam 8x)।
(৪) ইউপেটোরিয়াম পারফোলিয়েটাম 2x (Eupatorium perfoliatum 2x)
(৫) সিনকোনা 3x (Cincona 3x)।
(৬) ব্রায়োনিয়া ক্রোটিকা 8x (Bryonia crotica 8x)।
(৭) ল্যাচেসিস মিউটাস 7x (Lachisis mutus 7x)।
(৮) ভিনসেটক্সিকাম হিরুন্ডিনারিয়া 2x (Vinsetoxicum hirundinaria 2x)।

অ্যাডাল – ৬৫ কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথিক ঔষধের মুল উপদান

(ক) আর্সেনিক অ্যালবাম (Arsenic album) : শরীরের প্রতিটি টিস্যু এবং অঙ্গকে সম্বোধন করে। প্রচন্ড ক্লান্তিবোধ যা রাতে আরো খারাপ হয়ে যায়, আক্রান্ত স্থানে জ্বালাপোড়ার ব্যথা, প্রচন্ড ভয় ও অস্থিরতা সহ দাঁতের স্নায়ুতন্ত্রের সাথে উপস্থিত থাকে এবং সাধারণত শারীরবৃত্তীয় ব্যঘাত ঘটায়

(খ) অ্যাকোনাইট নেপেলাস (Aconite Naples ) : শরীরে কাঁপুনি সহ প্রাথমিক জ¦র, শরীরের সর্বত্র তীব্র তাপ প্রদাহ, একই সাথে প্রচন্ড অস্থিরাতা, এটি অ্যাকেনিটামের প্রতিকারের চিত্রকে চিহ্নিত করায়, প্রশান্তি দায়ক বৈশিষ্ট্য গুলিকে সঞ্চালন অঙ্গে টাকইকার্ডিকায়াক লক্ষণগুলি দিকে নির্দেশ করে এবং এখানে শরীরের সর্বত্র জ্বালাপোড়া ও ছুরিকাঘাতের মতো ব্যথা থেকে মুক্তি দেয়।

(গ) আর্জেন্টাম টাইট্রিুকাম (Argentum natitirukam) : আর্জেন্টাম নাইট্রিকামের একটি অ্যান্টিবাকটেরিয়াল ফাংশন রসবাহ করে যা সিলভারের ব্যাকটেরিয়ানাশক শক্তি (পধ. উ৭ পর্যন্ত) অ্যাসিড অবশিষ্টাংশের মিউকোসাল ক্লিনিং কার্যকারিতা (অ্যাডিডাম নাইট্রিকামের সাথে একত্রিত করে।

আরও পড়ুন – বায়ো কম্বিনেশন ১১ (জ্বর)

(ঘ) ইউপেটোরিয়াম পারফোলিয়েটাম (Eupatorium perfoliatum): ইনফ্লুয়েঞ্জার প্রতিকার হিসাবে এর একটি নিরাপদ স্থান রয়েছে যার ইঙ্গিত গুলি শুস্ক স্বাসনালী শ্লেম্মা থেকে শুরু করে জ¦র পর্যন্ত ব্যথা এবং সমস্ত হাড় ও জয়েন্টে ক্লান্তির অনুভুতি।

(ঙ) সিনকোনা (Cincona) : এটি পরিপাক অঙ্গগুলি ব্যাপক নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে, এই পদার্থটির অপরিহার্য স্তরে অবস্তাকে আরও সহজ করে তোলে, তীব্র অথবা রেমিটেন্ট জ্বরের কার্যকারিতা ছাড়াও দুর্বলতার বিরুদ্ধে একটি প্রদাহ বিরোধী ও অ্যান্টি-নিউরালজিক প্রভাব রয়েছে। রোগীর সুস্থতা ফিরিয়ে দিয়ে স্বস্থ্য পুনরুদ্ধারের আনতে সহায়তা করে।

(চ) ব্রয়োনিয়া ক্রোটিকা (Bryonia crotica) : প্রদাহ ও ইনফ্লয়েঞ্জার প্রতিকার যা শুস্ক মিউকোসাল মেবব্রেনের পাশাপাশি সমস্ত সিরাস মেবব্রেন ছুরিকাঘাতে ব্যথা এবং সারা শরীরে প্রদাহ জনিত উপসর্গ দ্বার চিহ্নিত করা হয়। এটি পরিপাক অঙ্গগুলির ব্যাপক নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে, এই পদার্থটি একটি অপরিহার্য স্তরে অবস্থাকে সহজ করে তোলে। ছাড়াও তীব্র এবং রেমিটেন্ট জ্বরের পাশাপাশি একটি অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি এবং অ্যান্টি-নিউরালজিক প্রভাবের জন্য দুর্বলতার বিরুদ্ধে কাজ করে রোগীর স্বাস্থ্য পুনরুদ্ধার করতে সাহায্য করে।

(ছ) ল্যাচেসিস (Lachisis mutus) : এটি গুরুত্বপূর্ণ পদার্থ যোগ করে করণ এটি সেপিটিক জ¦রের সাথে মিলিত হয়ে সমস্ত সংক্রামক রোগের রিরুদ্ধে লড়াই করে। বিশেষভাবে নিরাপদে সংক্রমণের পরিবর্তনগুলিকে বাধা দেয়, সবসময় ভয়ঙ্কর কারণ তারা প্রায়শই মায়োকার্ডিয়াল ক্ষতি করে। এটি রক্তক্ষরণজনিত জ¦র এবং চিহ্নিত প্রমাণ এবং তালু ও তলপেটে পোড়ার বিরুদ্ধেও কার্যকর।

আরও পড়ুন – এইচ আর – ০৫ (ইনফ্লুয়েঞ্জা চিকিৎসায় কার্যকর)

(ছ) ভিনসেটক্সিকাম হিরুন্ডিনারিয়া (Vinsetoxicum hirundinaria) : এটি প্রধানত অ্যান্টিভাইরাল হিসাবে বিবেচিত হয়, সাধারণত সমস্ত সিরাস মেবব্রেনের রোগের বিরোধিতা করে, তবুও এটি হজমের মিউকোসার প্রদাহে একটি চমৎকার ইঙ্গিত।

অ্যাডাল – ৬৫ ঔষধ সেবন বিধি : প্রাপ্ত বয়স্করা জন্য ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা, শিশুরা ৭ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ ১/৪ কাপ পানিতে মিশিয়ে দিনে ৩ বার অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে।

চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।

আরও পড়ুন – কেন্ট ৭০ (উচ্চ মাত্রা জ্বরে কার্যকর)

শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : এই ঔষধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

সতর্কতা : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন। সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev