সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১২:১৬ অপরাহ্ন

অ্যাডাল-৫৭ (হজম, গ্যাস্ট্রিক, লিভার)

আরোগ্য হোমিও হল / ১২৮ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪, ৫:৫৬ অপরাহ্ন
অ্যাডেল নং- ৫৭ (হজম, গ্যাস্ট্রিক, লিভার)

Adele -57 (Digestion. Gastric. Liver)।

অ্যাডাল নং- ৫৭ (হজম, গ্যাস্ট্রিক, লিভার)

আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো অ্যাডাল- ৫৭ (হজম, গ্যাস্ট্রিক, লিভার) কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়।

প্রস্তুত প্রণালী :  জার্মান কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।

ব্যবহার : অ্যাডাল নং- ৫৭ ঔষধ হজমের দুর্বলতা, অগ্ন্যাশয়, গ্যাস্ট্রিক, পেট ফাঁপা, লিভার, মাইগ্রেন এবং পিত্তজনিত মাথাব্যথার দীর্ঘ-দূরত্বের প্রভাবগুলির সাথে যুক্ত। Chionanthus পিত্তথলির প্রদাহ সহ হেপাটিক পরবর্তী অবস্থাতেও ব্যবহার করা হয়।

অ্যাডাল নং- ৫৭ ঔষধের লক্ষণ :
(১) অ্যাডেল নং- ৫৭ ঔষধটি অগ্ন্যাশয়ের রসে শতকরা শতাংশ বৃদ্ধি করে, যা পরিপাক ক্রিয়া নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে এবং এর সক্রিয় পদার্থ, অ্যামাইলেসেস (কার্বোহাইড্রেট), কাইমোট্রিপসিন (বিভক্ত প্রোটিন) ওলিপেজ উন্নত করে।
(২) এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তবে বিপাকের তিনটি অঙ্গকে গভীর সমর্থন এবং অ্যান্টিটক্সিক প্রভাব প্রদান করে।
(৩) এটি হেমোরয়েডস ও এন্টারাইটিসের বিরুদ্ধে ইঙ্গিত দেখায়, শিরাস্থ সঞ্চালনে রক্ত নিয়ন্ত্রণের একটি চিহ্ন হিসাবে দেখায়।
(৪) এটি দুর্বল, নিদ্রাহীন, হতাশাগ্রস্ত এবং ত্বকে ব্যথা, শুষ্ক মিউকাস, ডিসপেপটিক-মেটিওরিজম ও স্নায়বিক দুর্বলতার লক্ষণ গুলো নিয়ন্ত্রণ করে।
(৫) এটি মায়োকার্ডাইটিস, মানসিক অবসাদ, গ্যাস্ট্রিক, আলসার ভেন্ট্রিকুলি ও আলসার ডুওডেনির বিরুদ্ধে কাজ করে।
(৬) এটি অগ্ন্যাশয়, লিভার ও গলব্লাডারের মতো পরিপাক অঙ্গগুলির কার্যকারিতা শক্তিশালী করার সহায়ক ও প্রতিকার করে।

আরও পড়ুন – এইচ আর -১৪ (গ্যাস্ট্রিক এবং আলসারের চিকিৎসায় কার্যকর)

অ্যাডাল নং- ৫৭ ঔষধের মুল উপাদান :
(ক) আইবেরিস আমরা 4x (Iberis amara 4x)।
(খ) আইরিস ভার্সিকলার 6x (Iris versicolor 6x)।
(খ) ইচহর্নিয়া ক্র্যাসিপস 4x (Eichornia crassipex 4x)।
(গ) গ্লোকোমা হেডিরেসিয়া 6x (Glechoma hederacea 6x)।
(ঘ) চিওনান্থাস ভার্জিনিকাস 6x (Chionanthus virginicus 6x)।
(ঙ) নাক্স-মস্কেটা 4x (Nux moschata 4x)।
(চ) হেডেরা হেলিক্স 12x (Hedera helix 12x)।
(ছ) ফসফরাস 12x(Phosphorus 12x)।

আরও পড়ুন – এইচ আর -৩৫ (বদহজম ও গ্যাসের চিকিৎসায়)

অ্যাডাল নং- ৫৭ ঔষধের কার্যকারিতা :

(১) আইবেরিস আমরা (Iberis amara) : এটি হৃদয় ও পরিপাক অঙ্গগুলির প্রতিক্রিয়া কার্যকারিতা দেখায় যা পূর্ণ, বমি ও বমি ভাব এবং ক্স্যাম্প যন্ত্রণার অনুভূতি দ্বারা প্রকাশ করে। যা গভীর শ্বাস-প্রশ্বাসের আকাঙ্খার সাথে যুক্ত হৃদপিন্ডের কার্যকলাপের কার্যকরী কর্মহীনতার দিকে পরিচালিত করে।

(২) আইরিস ভার্সিকলার (Iris versicolor ) : এটি হজম প্রক্রিয়াগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করে। এটির লক্ষণগুলির সাথে হাইপার অ্যাসিডিটি, লিভার, অগ্ন্যাশয় বা গলবøাডারের তীব্র এবং দীর্ঘস্থায়ী সমাস্যায় কাজ করে।

(৩) চিওনান্থাস ভার্জিনিকাস (Chionanthus virginicus) : এটি একটি প্রতিকার লিভার ও অগ্ন্যাশয় গ্রন্তির ডিস-ফার্মেন্টেশনের বিরুদ্ধে কাজ করে, বেদনাদায়ক সহ পিত্তজনিত মথাব্যাথা সহ মাইগ্রেনের চরিত্রের মতো। পিত্তথলির প্রদাহ সহ হেপাটিক পরবর্তী অবস্থাতেও ভাল ফলাফল দেখায়।

(৪) ইচহর্নিয়া ক্র্যাসিপস (Eichhornia crassipex) : এটি অগ্ন্যাশয়ের রস বাড়ায় যা পরিপাক ক্রিয়া নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে এবং সক্রিয় পদার্থ অ্যামাইলেস (কার্বোহাইড্রেট), কাইমোট্রিপসিন (বিভাজন প্রোটিন) এবং লাইপেজ (চর্বি বিভাজনকারী এনজাইম) উন্নত করতে সাহায়তা করে।

আরও পড়ুন – কেন্ট ১১ (লিভার এবং গল ব্লাডার রোগে কার্যকর)

(৫) গ্লোকোমা হেডিরেসিয়া (Eichhornia crassipex) : এটি অঙ্গগুলিতে গভীর ভাবে সমর্থন করে এবং অ্যান্টিকক্সিন প্রভাব প্রদান করে। এটি অর্শ্ব রোগ ও এন্টারাইটিসের বিরুদ্ধে ইঙ্গিত দেখায় যা শিরাস্থ রক্ত সঞ্চালনের একটি চিহ্ন হিসাবে দেখায়।

(৬) হেডেরা হেলিক্স (Hedera helix) : পিত্তথলির অস্বাভাবিকতার পাশাপাশি পাকস্থলী ও ছোট অন্ত্র এবং অগ্ন্যাশয় অঞ্চলের প্রদাহ জনক প্রকিয়াগুলিকে সম্বোধন করে।

(৭) নাক্স-মস্কেটা (Nux moschata) : দুর্বল নিদ্রাহীন, পেটে খিঁচুনি ও ব্যথা সহ হতাশা, শ্লেম্মা ঝিল্লি এবং ত্বকের চরম শুস্কতা, পেট ফাঁপা ও ডিসপেপসিয়ার লক্ষণগুলিতে নিয়ন্ত্রণ করে।

(৮) ফসফরাস (Phosphorus) : এটি লিভারের ও পাকস্থলী এবং কোলনের ক্যাটরসের বিরুদ্ধে একটি অত্যান্ত গুরুত্বর্পূর্ণ প্রতিকার। এটি মায়োকার্ডাইটিস, মানসিক অবসাদ, গ্যাস্ট্রাইটিস, গ্যাস্ট্রিক ও ডুওডেনাল আলসারের বিরুদ্ধে কাজ করে। এটি মাথায় রেখে প্রতিকারটি প্যানসাটিক গ্রন্থির কার্যকারিতা এবং অন্যান্য বিপাকীয় অঙ্গগুলি সংযুক্ত সমস্যাগুলির সাথে হজম অস্বাভাবিককার একটি বিস্তৃত অঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করে।

অ্যাডাল নং- ৫৭ ঔষধ সেবন বিধি : প্রাপ্ত বয়স্করা জন্য ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা, শিশুরা ৭ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ ১/৪ কাপ পানিতে মিশিয়ে দিনে ৩ বার অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে।

চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।

আরও পড়ুন – এন – ০৭ (লিভার ও গলব্লাডার ড্রপস)

শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : এই ঔষধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

সতর্কতা : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন। সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev