শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০২:২৯ অপরাহ্ন

অ্যাডাল-১৩ (স্থূলতা বা অতিরিক্ত ওজন)

আরোগ্য হোমিও হল / ১০৮ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ সোমবার, ১১ মার্চ, ২০২৪, ৬:১৩ অপরাহ্ন
অ্যাডেল নং – ১৩ (স্থূলতা বা অতিরিক্ত ওজন)

Adel -13 (Obesity or Overweight)
অ্যাডাল – ১৩ (স্থূলতা বা অতিরিক্ত ওজন)।
আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো “অ্যাডাল  ১৩ (স্থূলতা বা অতিরিক্ত ওজন)“ কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়
প্রস্তুত প্রণালী : জার্মানে কাম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।
ব্যবহার : অ্যাডাল নং – ১৩  ( ফ্যাটেক্স) ড্রপসটি অ্যাডিপোজ রোগীদের মেটাবলিজম পরিবর্তন ও অতিরিক্ত ওজন স্বাভাবিক করতে সাহায্য করে স্থূলতার জন্য একটি প্রতিকার এবং স্লিমিং প্রভাব রয়েছে।
অ্যাডাল  ১৩  ( ফ্যাটেক্স) ড্রপসটি সম্পর্কে ধারণা : এটি স্থূলতা এবং অতিরিক্ত ওজনের চিকিৎসায় ব্যবহার হয়, যে সব ব্যাক্তির শরীরে চর্বি জমার প্রবণতা রয়েছে এমন রোগীদের বিপাককে স্বাভাবিক করার এবং পরিবর্তন করার ক্ষমতা রয়েছে। এটি ড্রপসটি স্থূলতা কমাতে সাহায্য করে এবং স্লিমিং প্রভাব প্রদান করে।
অ্যাডেল নং – ১৩  ( ফ্যাটেক্স) ড্রপসটির লক্ষণ : স্থূলতা ও অতিরিক্ত ওজনের চিকিৎসা পরীক্ষা করার আগে রোগীর সংক্ষিপ্ত পটভূমিটি বোঝা গুরুত্বপূর্ণ। স্থূলতা বলতে বোঝায়  শরীরে অতিরিক্ত ওজন হওয়া অর্থাৎ আপনার শরীর অনুযায়ীর চেয়ে অস্বাভাবিক ওজনের বেশি। সংক্ষেপে আপনি যদি স্থূল হন তা হলে আপনার বডি মাস ইনডেক্স অথবা BMI বেশি। BMI হলো আপনার শরীরের উচ্চতা ও ওজনের একটি গ্রুপিং। অস্বাস্থ্যকর খাদ্যের সাথে মিলিত একটি BMI ৩০ বা তার বেশি, এবং অপর্যাপ্ত শারীরিক কার্যকলাপ অতিরিক্ত ওজনের কারণে আপনার স্বাস্থ্যকে বিপদে ফেলে। স্থূলতা টাইপ – ২ ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ ইত্যাদি রোগ সৃষ্টি করেও স্বাস্থ্যকে প্রভাবিত করে।

আরও পড়ুন –  এইচ আর -৮২ (স্থূলতাদেহ বা মেদ বৃদ্ধি)

অ্যাডাল  ১৩  ( ফ্যাটেক্স) ড্রপসটির কম্বিনেশন :
(ক) ফুকাস ভেসিকুলোসাস 3x (Fucus Vesiculosus 3x)।
(খ) গ্রাফাইটস 12x (Graphites 12x)।
(গ) লাইকোপোডিয়াম ক্ল্যাভাটাম 12x (Lycopodium Clavatum 12x)।
(ঘ) ফসফরাস 12x (Phosphorus 12x)।
(ঙ) স্পঞ্জিয়া টোস্টা 4x (Spongia Tosta 4x)।
(চ) ট্যারাক্সাকাম অফিসনাল Ø (Taraxacum Officinale Ø)।

আরও পড়ুন –  কেন্ট ১৪ (মেদবৃদ্ধি রোগে কার্যকর)

অ্যাডেল নং – ১৩  ( ফ্যাটেক্স) ড্রপসটির কার্যকারিতা :
(১) ফুকাস ভেসিকুলোসাস (Fucus Vesiculosus) : এটি স্থূলতার জন্য এটি একটি উপাদান যা থাইরয়েড গ্রন্থির কাজকে উদ্দীপিত করে। এটি অ-বিষাক্ত গলগন্ড এবং থাইরয়েড ও স্থূলতার বিষয়গুলির জন্য কাজ করে।
(খ) গ্রাফাইটস (Graphites) : পাচক অঙ্গগুলির টিস্যুগুলির কার্যকলাপকে উদ্দীপিত করে, স্থূলতার প্রভাব কমাতে সাহায্য করে। এটি স্বাস্থ্যকর ক্ষরণের জন্য গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থিগুলির হ্রাসকৃত কাজ শেষ করতেও সহায্য করে।
(গ) লাইকোপোডিয়াম ক্ল্যাভাটাম (Lycopodium Clavatum) : এটি স্থূলতা অতিরিক্ত ওজনের চিকিৎসার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ। স্ব-বিষের সমস্ত অবস্থার জন্য গুরুত্বপূর্ণ পলিক্রেস্ট। এটি হাইপারকোলেস্টেরোলেমিয়ার বিরুদ্ধে কাজ করে, দীর্ঘস্থায়ী কোষ্ঠকাঠিন্য এবং শিরাস্থ স্ট্যাসিস চিকিত্সা করে।

আরও পড়ুন –  অ্যাডেল নং – ১৭ (ছানি, গ্লুকোমা ও দুর্বল দৃষ্টি)

(ঘ) ফসফরাস (Phosphorus) :  এটি সমস্ত অভ্যন্তরীণ অঙ্গ, লিভার, প্লীহা, হৃৎপিণ্ড এবং হজমের উপায়গুলির কাজ নিয়ন্ত্রণ করে। এটি একটি ভাল মেজাজের দিকে স্নায়বিক অবস্থা নিয়ন্ত্রণ করে।
(ঙ) স্পঞ্জিয়া টোস্টা (Spongia Tosta) :  এটি থাইরয়েড গ্রন্থি, লিম্ফ্যাটিক গ্রন্থি এবং হৃৎপিণ্ডের কার্যকারিতা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। এর আয়োডিন উপাদান রক্তনালীতে লিপিড (অ্যাথেরোমেটিজ) এর অবক্ষয়জনিত জমে থাকা দমনে কাজ করে
(চ) ট্যারাক্সাকাম অফিসনাল (Taraxacum Officinale) :  হেপাটিক লোডিং কমায় ও পিত্তথলি এবং কিডনি নিঃসরণের কাজকে উন্নত করে। তাই এটি স্থূল রোগীদের বিপাকীয় প্রক্রিয়া উন্নত করতে সাহায়তা করে।

আরও পড়ুন –   ফাইটোলাক্কা বেরি ৩x

অ্যাডাল ১৩ ঔষধ সেবন বিধি : প্রাপ্ত বয়স্করা জন্য ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা, শিশুরা ৭ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ ১/৪ কাপ পানিতে মিশিয়ে দিনে ৩ বার অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে।
চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।

আরও পড়ুন –  ফাইটোস্লিম ট্যাবলেট (মেদ ভূড়ি ও ওজন কামতে কার্যকরী)

শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।

সতর্কতা : গর্ভবতী মা অথবা দুগ্ধদানকারী মায়েরা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করা উত্তম।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : এই ঔষধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।
ঔষধ সরক্ষণ : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।

ঔষধের গুণগতমাণ : এটি একটি প্রাকৃতিক পণ্য, এটি কখনও কখনও সামান্য বৃষ্টিপাত অথবা মেঘলা হতে পারে, কিন্তু এটি পণ্যের গুণমান এবং এর কার্যকারিতা প্রভাবিত করে না। যদি এটি ঘটে তবে পণ্যটি ব্যবহার করার আগে ভালভাবে ঝাঁকি নিন। একবার আপনি সীলটি ভেঙে ফেললে, ওষুধগুলি দ্রুত ব্যবহার করা উচিত।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন।  এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।  সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন।  আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev