মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন

আর ১৮৯ (নখের ব্যাধি) 

আরোগ্য হোমিও হল / ৫৮ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ, ২০২৪, ২:৫৫ অপরাহ্ন
আর ১৮৯ (নখের ব্যাধি) 

Dr. Reckeweg R 189 আর ১৮৯ (নখের ব্যাধি) 
R 189 (Nail Disorders)
আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো “ আর ১৮৯ (নখের ব্যাধি) ” কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়।
প্রস্তুত প্রণালী : উৎ. জবপশববিম/ আর ১৮৯ জার্মান কম্বিনেশন (নেইল ডিসঅর্ডার) হোমিওপ্যাথি ঔষধ।
আর ১৮৯ ড্রপটির ব্যবহার : নখের বৃদ্ধির ব্যাধি যেমন – নরম, পাতলা, ভঙ্গুর নখ ইত্যাদি।
আর ১৮৯ ড্রপসটির মুল উপাদান মিশ্রণ :
(ক) অ্যাসিডাম হাইড্রোফ্লুরিকাম ((Acid Hydrochloric)।
(খ) থুজা অক্সিডেন্টালিস (Acid Hydrochloric)।
(গ) সাইলিসিয়া (Silicea)।

অরও পড়ুন –  এইচ আর – ৩০ (ত্বক ও রক্ত পরিশোধনে কার্যকর)

আর ১৮৯ ড্রপসটি কার্যকারিতা : বিভিন্ন অ্যাকশন ফোকাস সহ, তারা আঙ্গুলের নখ ও পায়ের নখের ব্যাধিগুলিকে প্রভাবিত করে।
(১) অ্যাসিডাম হাইড্রোফ্লুরিকাম (Acid Hydrochloric) : ত্বকের সাথে অর্গানোট্রপিক সম্পর্ক। এটি নখের দ্রুত বৃদ্ধির মতো লক্ষণ রয়েছে, যদিও নখগুলি ভঙ্গুর এবং ভঙ্গুর।
(২) থুজা অক্সিডেন্টালিস (Thuja Occidentalis) : এটি নখগুলি ভঙ্গুর, নরম, পাঁজরযুক্ত, বিকৃত এবং সহজেই ভেঙে যায়।
(৩) সাইলিসিয়া (Silicea) : ত্বকের সাথে অর্গানোট্রপিক সম্পক রয়েছে। আত্তীকরণ, পুষ্টি এবং resorption ব্যাহত সহ এর প্রধান লক্ষণ, ভঙ্গুর এবং ভঙ্গুর আঙ্গুলের নখ এবং পায়ের নখ বিভক্ত হওয়ার প্রবণতা রয়েছে। পেরেক বিছানা এর মৎড়ড়াবংgrooves মধ্যে suppurations নখ পড়ে যাওয়া।
আর ১৮৯ ঔষধ সেবন বিধি : প্রাপ্ত বয়স্করা জন্য ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা, শিশুরা ৭ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ ১/৪ কাপ পানিতে মিশিয়ে দিনে ৩ বার অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে।

অরও পড়ুন –   কেন্ট ২৬ (দাঁতের ব্যথায় কার্যকর)

কিছু পরারর্শ : গর্ভবতী নারীরা ঔষধ সেবনে আগে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুণ। ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।
শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।
সতর্কতা : গর্ভবতী মা অথবা দুগ্ধদানকারী মায়েরা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করা উত্তম।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : এই ঔষধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

ঔষধ সরক্ষণ : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।
আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন।  এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন লাইক – কমেন্ট করে“ জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।  সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন।  আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev