বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৮:২৬ পূর্বাহ্ন

হিপার সালফার (৩X-৬X)

আরোগ্য হোমিও হল / ২৫৩ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন, ২০২৩, ৫:৪৪ অপরাহ্ন

হিপার সালফার (৩X-৬X)

Hepar Sulphur (3X-6X)

ক্যাটাগরি : হোমিওপ্যাথিক ঔষধ।

প্রস্তুত প্রণালী : ইন্ডিয়া হোমিওপ্যাথিক ফার্মাকোপিয়া অনুযায়ী প্রস্তুত।

হিপার সালফার ক্যালসিয়াম সালফাইড এবং চুনের সালফার নামে পরিচিত।

হিপার সালফার (৩X-৬X) ঔষধের ব্যবহার : অগ্ন্যুৎপাত এবং গ্রন্থি ফুলা, মাড়ি এবং মুখের ব্যথা এবং রক্তপাতে উপকারী।

হিপার সালফার (৩X-৬X)  ঔষধের সাধারণ লক্ষণ : ঘাড়ের ফোলা স্পর্শ করলে বেদনা বাড়ে, শরীরে জ্বালাপোড়া চুলকানি, আঁচড়ের পর সাদা পুঁজ, কাশি এবং গলা ব্যথা, মনে হয় গলায় কিছু আটকে গেছে।

এছাড়াও সর্দি, স্রাব সহ কানে ব্যথা, লসিকা গ্রন্থি ফুলা,খিটখিটে মেজাজ, ঠান্ডা প্রয়োগের সাথে অসুখ বাড়ে। দুর্গন্ধযুক্ত, আপত্তিকর মল সহ হজমের সমস্যায় কার্যকর।

হিপার সালফার (৩X-৬X) ঔষধের গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণ : শিশুর স্তন্যপান করার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি, অস্বাস্থ্যকর ত্বক, সহজেই সংক্রামিত হয়। ত্বক খোলা বাতাসে বৃদ্ধি। প্রদাহযুক্ত ত্বক যেমন – ব্রণ এবং আঘাত যা সহজেই পুঁজ তৈরি করে, সংবেদনশীল বিস্ফোরণ; পুঁজ দুর্গন্ধযুক্ত, হিপার সালফ খুব ভালো কাজ করে।

হিপার সালফার (৩X-৬X) ঔষধ ত্বকের রোগ নিরাময় করতে সহায্য করে যার মধ্যে রয়েছে: অগ্ন্যুৎপাত, ব্রণ, মুখ এবং মুখের জ্বালা, হাত ও পায়ে গভীর ফাটল, বা মাড়ি/দাঁতের সমস্যা যার প্রান্তের চারপাশে ছোট পিম্পল রয়েছে।
দীর্ঘদিনে ক্ষতের চারপাশে ছোট ছোট প্যাপিউল তৈরি করার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ক্ষত নিরাময় করে। হাঁটার সময় কাশি কষ্টকর, শুষ্ক, কর্কশ কাশি।

হিপার সালফার (৩X-৬X) ঔষধ সেবন বিধি : ট্যাবলেটগুলি মুখে রাখুন এবং তাদের জিহ্বার নীচে দ্রবীভূত করতে দিন। প্রাপ্তবয়স্করা ও কিশোর-কিশোরীরা (১২ বছর বা তার চেয়ে বেশি বয়সী) ২টি ট্যাবলেট, প্রতিদিন সাকাল- রাত (দুইবার) অথবা রেজিষ্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সেবন করুণ। দীর্ঘস্থায়ী সমাধানের ক্ষেত্রে প্রতিদিন এক থেকে দুই বার সেবন করতে হবে। লক্ষণগুলির উন্নতির সাথে সাথে ডোজ কম করুন। যদি ঔষধ সেবন করেও উপশম না হয় তবে একজন বিশেষজ্ঞের সাথে পরামর্শ করুন।

হিপার সালফার (৩X-৬X) ঔষধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : অ্যালোপ্যাথি অথবা আয়ুর্বেদিক বা অন্যান্য ঔষধ থাকলেও হোমিওপ্যাথিক ট্যাবলেটগুলি সেবন করা নিরাপদ। হোমিওপ্যাথিক ওষুধগুলি অন্যান্য ওষুধের ক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করে না। এটি নিরাপদ এবং কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

হিপার সালফার (৩X-৬X) ঔষধের সতর্কতা : আপনি যখন ওষুধ খান তখন খাবারের ১৫ মিনিট আগে বা ১৫ মিনিটের পরে ঔষধ খাওয়া উত্তম।

বিশেষ দ্রষ্টব্য : হিপার সালফার (৩X-৬X) ঔষধ গর্ভবতী বা বুকের দুধ বাচ্চা থাকলে ঔষধ খাওয়ার আগে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসককে পরামর্শে সেবন করুন। তবে যে কোন ঔষধ নিজে খাওয়া ঠিক নয়। এতে করে শারীরিক ও মানুষিক ক্ষতি হতে পারে। সব সময় একজন রেজিষ্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করুণ।

বাধা নিষেধ : ওষুধ খাওয়ার সময় তামাক খাওয়া বা অ্যালকোহল পান করা ঠিক নয়।

হিপার সালফার (৩X-৬X) ঔষধ সংরক্ষণ : আলো-বাতাস, সুগন্ধ-দগন্ধ থেকে দুরে শীতল ও শুস্কস্থানে, শিশুদের নাগাল এর বাইরে রাখুন।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : এ ওয়েব সাইটের মুল উদ্দেশ্যে হচ্ছে স্বাস্থ্য সম্পের্ক কিছু দান করা বা তুলে ধরা। সাধার মনুষের উপকার হবে। বিশেষ করে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক ও ছাত্ররা উপকৃত হবেন। এ ওয়েব সাইটে থাকছে পুরুষ স্বাস্থ্য বা যৌনস্বাস্থ্য, গাইনি স্বাস্থ্য, শিশুস্বাস্থ্য, মাদার টিংচার, সিরাপ, বম্বিনেশন ঔষধ, বাইকেমিক ঔষধ, হোমিওপ্যাথিক বই, ইউনানি, হামদর্দ, হারবাল, ভেজষ, স্বাস্থ্য কথা ইত্যাদি। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন লাইক – কমেন্ট করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে শেয়ার করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev