শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৬:৫৩ অপরাহ্ন

সহবাসের পর স্ত্রীকে শুয়ে থাকা কি খুব জরুরী?

আরোগ্য হোমিও হল / ১৮৮ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ রবিবার, ৫ নভেম্বর, ২০২৩, ৫:৫৯ অপরাহ্ন

সহবাসের পরে শুয়ে স্ত্রীকে থাকা কি খুব জরুরী?

আরোগ্য হোমিও হল এ আপনাকে সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, অপনারা সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা আলোচনা  সহবাসের পরে স্ত্রীকে শুয়ে থাকা কি জরুরী? সহবাসের পর স্ত্রী শুয়ে থাকলে উপকার কি? না শুয়ে থাকলে ক্ষতি কী? তা নিয়ে আজকের আলোচনা।  এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি যাচ্ছি মূল আলোচনায়।

সহবাসের পরে শুয়ে থাকা কি খুব জরুরী?

যোনী বা সারভিক্সের আশে পাশে বীর্য থাকে। একবার বীর্যপাত হওয়া মানেই আপনার যোনীতে কয়েক লক্ষ শুক্রানুর প্রবেশ। আপনার যৌন মিলনের পরে দাঁড়িয়ে পড়লেও সব শুক্রানুর সরে যাওয়া বা বেড় হয়ে গেল মনে হয়। এটা কোন কোন সমস্যা না। তাই যৌন মিলন বা সহবাস করার পর সাথে সাথে দাঁড়িয়ে পড়লেও গর্ভধারনে কোন সমস্যা হবে না। যদি আপনার হাতে সময় থাকে, আপনার কোন সমস্যা না হয়, তবে যৌন মিলনের পর ৩০ মিনিট শুয়ে থাকা ভালো। সহবাসের পর বিছানায় পিঠ লাগিয়ে শুয়ে থাকুন। যেন বীর্য জরায়ুর দিকে সহজে যেতে পারে। জরায়ুতে শুক্রানু সহজের প্রবেশ করানোর জন্য একটা কোলবালিশ পায়ের নীচে দিয়ে রাখতে পারেন যেন পা গুলো একটু উঁচু হয়ে থাকে। সাফ কথা বীর্য যতখানি সময় ধরে জরায়ুর ভিতরে রাখা যায় ততই আপনার ভালো। আপনি যদি এ ভাবে শুয়ে থাকেন তা হলে বীর্য সহজে জরায়ু, সারভিক্স হয়ে ফ্যালোপেন টিউবে প্রবেশ করবে।

শারীরিক মিলন বা সহবাসের জন্য ঘুমের আগের সময়টি বেছে নিতে পারেন। যেন মিলনের সাথে সাথে আপনাকে উঠে না যেতে হয় বিছানা থেকে। কিন্তু যদি আপনার জরুয়ুতে কোন ইনফেকশন থাকে , চিকিৎসক যদি আনাকে পরামর্শ দিয়ে থাকে সহবাসের পরপর মুত্রথলি খালি করতে বলে তবে আপনার যৌনমিলনের পর দেরী করা ঠিক হবে না। শারীরিক মিলনের পর পরই নিজেকে পরিষ্কার করে নেয়ার অভ্যাস খুবই ভালো। এতে করে কোনো রকম ইনফেকশনের ভয় থাকে না। কিন্তু গর্ভধারণের জন্য অন্তত ১ ঘন্টা পানি দিয়ে যৌনাঙ্গ না ধুয়েই থাকাই ভালো।

আরও পড়েন – এইচ আর – ১৯ (মহিলা বন্ধ্যাত্বের চিকিৎসায় কার্যকর)

গর্ভবতী হওয়ার জন্য শারীরিক মিলনের বিষয়ে একটু হিসাবি হতে হবে। অনিয়ন্ত্রিত যৌন মিলন পরিহার করতে হবে। মাসিকের সঠিক হিসাব রেখে নিয়ম মেনে শারীরিক মিলন গর্ভধারণ খুব সহজে হয়ে থাকে। তার মানে আবার এই না যে নিজেদের আনন্দ বিসর্জন দিয়ে দিতে হবে! মনে রাখবেন শারীরিক মিলনের সম্পুর্ন আনন্দ বজায় রেখেই গর্ভধারণের চেষ্টা করতে হবে। এতে করে স্বামী-স্ত্রী উভয়ের জন্য আনন্দদায়ক হবে। গর্ভধারনের প্রথম শর্ত হচ্ছে নিয়মিত সহবাস করতে হবে। প্রতি সপ্তাহে একদিন সহবাসের চেয়ে প্রতি ২/৩ দিন পরপর সহবাস করলে এক বছরের মধ্যে গর্ভধারনের মাত্রা বাড়ায়

আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন। যদি এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগে এবং প্রয়োজনীয় মনে হয় তবে অনুগ্রহ করে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না যেন।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন  : এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev