শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৬:২৫ অপরাহ্ন

ডেঙ্গু হলে কী খাওয়া যাবে, কী খাওয়া যাবে না

আরোগ্য হোমিও হল / ২৪৫ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২৩, ১২:১০ অপরাহ্ন
ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপত্র

ডেঙ্গু হলে কী খাওয়া যাবে, কী খাওয়া যাবে না
আরোগ্য হোমিও হলে আপনাকে স্বাগতম, এখানে আজ ডেঙ্গুর হওয়ার কারণ, লক্ষণ ও চিকিৎসা নিয়ে আলোচনা কররো। চলেন কথা না বাড়িয়ে মুল আলোচনায় ফিরে যায়।
দেশে বর্তমানে বহু মানুষ ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। এটি একটি ভয়ঙ্কর ধরণের জ্বর। এডিস ইজিপ্টি নামের মশার কামড়ের মাধ্যমে ডেঙ্গু ভাইরাস মানব শরীরে প্রবেশ করে। এ মশা ভাইরাসবাহী কাউকে কামড়ানোর পর অন্য আরেক জনকে কামড়ালে সেই মানুষটি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়। এ ভাবে ডেঙ্গু জ্বর বা এডিস মশার মাধ্যমে ছড়ায়। গ্রীষ্ম ও বর্ষাকালে ডেঙ্গু জ¦রে আক্রান্ত হওয়ার হার বেশি। সাধারণত এ রোগের লক্ষণ – জ্বর, গায়ে প্রচণ্ড ব্যথা, শরীরে ফুসকড়ি বা র‌্যাশ হয়ে থাকে। শরীর খুব দুর্বল লাগে, মাথা ঘোরে, আবার কারও কারও বমি ভাব বা বমি হয়। শরীরে রক্তচাপও কমে যেতে পারে।

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হলে রোগী মুখ রুচি থাকে না ফলে প্রায় কিছুই খেতে চায় না। বিশেষ করে, শিশু ও বয়স্ক মানুষকে নিয়ে সমস্যা বেশি হয়। খাওয়া বন্ধ করার ফলে রোগী আরও দুর্বল হয়ে পড়ে।

এমন রোগীকে খাওয়ানোর ব্যাপারে কয়েকটি পরামর্শ নিন্মে আলোচনা করা হলো :
জ্বর হলে রোগীর শরীরে ক্যালরির চাহিদা বাড়ে। কারণ তখন বিপাক বেড়ে যাওয়ায়, শরীরে বেশি পুষ্টির দরকার হয়। তাই খাওয়া বন্ধ করলেই বিপদ বাড়ে। যদি খাবারে রুচি কমে যায় এমন খাবার বেছে নিন, যা অল্প খেলেও বেশি ক্যালরি পাওয়া যায়।

ডেঙ্গু বা চিকুনগুনিয়া হলেই প্রচুর পানি পান করতে হবে, দিনে কমপক্ষে তিন লিটার পানি পান করুণ। পানির পাশাপাশি লবণ ও খনিজ উপাদানসমৃদ্ধ তরল (যেমন- ডাবের পানি, ওরস্যালাইন, লেবু-লবণের শরবত, ফলের রস) পান করা উচিত। এতে করে রক্তচাপ হ্রাসের ঝুঁকি কমবে। তবে অতিমিষ্টি পানীয় বমি বমি ভাব হতে পারে। কোমল পানীয় বা আইসক্রিম সহজে পিপাসা মেটায় না।

খাবারে অরুচি বা বমি ভাব হলেই তেল-মসলাযুক্ত খাবার, ফাস্ট ফুড ইত্যাদি না খাওয়াই ভালো। খাবারের তালিকায় পর্যাপ্ত শর্করা খাবার রাখুন যেমন- ভাত, জাউভাত, ওটমিল ইত্যাদি। আরও রাখুন প্রোটিন যেমন- দুধ, দই, মাছ বা মুরগির মাংস ও স্যুপ ইত্যাদি। অনেক ডেঙ্গু বা চিকুনগুনিয়া রোগীর খেতে যদি বমি আসে। তারা হালকা শুকনো খাবার খেতে পারে যেমন- বিস্কুট, মুড়ি ইত্যাদি। এতে করে বমি ভাব কমবে। এছাড়া আদা-চা, গ্রিন-টি বা শুকনো আদা বমি ভাব কমায়। এ সময় ফলমূল খেতে হবে বেশি বেশি করে।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : এ ওয়েব সাইটের মুল উদ্দেশ্যে হচ্ছে স্বাস্থ্য সম্পের্ক কিছু দান করা বা তুলে ধরা। সাধারণ মনুষের উপকার হবে। বিশেষ করে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক ও ছাত্ররা উপকৃত হবেন। এ ওয়েব সাইটে থাকছে পুরুষ স্বাস্থ্য বা যৌনস্বাস্থ্য, গাইনি স্বাস্থ্য, শিশুস্বাস্থ্য, মাদার টিংচার, সিরাপ, বম্বিনেশন ঔষধ, বাইকেমিক ঔষধ, হোমিওপ্যাথিক বই, ইউনানি, হামদর্দ, হারবাল, ভেজষ, স্বাস্থ্য কথা ইত্যাদি। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev