শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৭:২৭ অপরাহ্ন

অ্যাডাল-৩১ (পিরিয়ড সংক্রান্ত)

আরোগ্য হোমিও হল / ১২৫ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ শনিবার, ২ মার্চ, ২০২৪, ৫:৪৫ অপরাহ্ন
আডেল নং -৩১ (পিরিয়ড সংক্রান্ত)

Adel -31 (Period)।

আডাল  -৩১ (পিরিয়ড সংক্রান্ত)।

প্রস্তুত প্রণালী :  জার্মান কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।

আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো “আডাল  -৩১ (পিরিয়ড সংক্রান্ত)” কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়।

ব্যবহার : অ্যাডাল -৩১ ড্রপসটি মহিলাদের পিরিয়ড সংক্রান্ত অভিযোগের জন্য এবং একটি জটিল চিকিৎসার অংশ হিসাবে পলিসিস্টিক ওভারি সিন্ড্রোম, মাসিকের অভিযোগে কাজ করে। এটি ডিসমেনোরিয়ার সংবেদন, প্রল্যাপ্সড বিপদ, লিউকোরিয়া এবং অন্যান্য উপসর্গগুলিতে ব্যবহার হয়।

আডেল -৩১ ঔধের ইঙ্গিত : অনিয়মিত, বেদনাদায়ক, তাড়াতাড়ি/দেরী, ভারী/স্বল্প সময়ের জন্য, স্তন ফুলে যাওয়া এবং মেজাজের পরিবর্তন ইত্যাদি।

আডাল -৩১ ঔধের লক্ষণ : অনিয়মিত পিরিয়ডের কারণগুলির মধ্যে রয়েছে মানসিক চাপ, অতিরিক্ত ওজন কমে যাওয়া, খাওয়ার ব্যাধি, অসুস্থতা, অতিরিক্ত সক্রিয় থাইরয়েড, ধূমপান করা ইত্যাদি। বর্তমানে অনেক মহিলা অনিয়মিত মাসিকের সমস্যায় ভোগেন। পিরিয়ডের মধ্যে সময়ের পার্থক্য, কম বা বেশি রক্ত প্রবাহ ইত্যাদি অনিয়মিত মাসিকের লক্ষণ। সাধারণত একজন মহিলার প্রতি ২১ থেকে ৩৫ দিনের মধ্যে মাসিক হয়। অনিয়মিত পিরিয়ডের সাথে সম্পর্কিত সাধারণ ব্যাধিগুলির মধ্যে রয়েছে ডিসমেনোরিয়া যা যন্ত্রণাদায়ক সময়কালকে বোঝায় যা ক্র্যাম্প সহ, লিউকোরিয়া যা শ্লেষ্মা হলুদ বা সাদা স্রাবকে বোঝায় ইত্যাদি। ডিসমেনোরিয়ার সংবেদন অনেক মহিলার মধ্যে কোন কারণ ছাড়াই দেখা যায় (প্রাথমিক ডিসমেনোরিয়া), যখন জৈব বা কার্যকরী ভাবে সৃষ্ট ফর্মগুলি বিদ্যমান। বেদনাদায়ক মাসিক, স্তন ফুলে যাওয়া, প্রল্যাপসের বিপদ, লিউকোরিয়া এবং অন্যান্য উপসর্গগুলির জন্য কার্যকর।

আরও পড়ুন – বায়ো-কম্বিনেশন ১৫ (গাইনি সমস্যা)

আডাল  -৩১ ঔধের মিশ্রণ :

(১) ক্যালিয়াম কার্বনিকাম 6x (Kalium Bicarbonicum 6x)।
(২) চ্যামেলিরিয়াম লুটিয়াম 6x (Chamaelirium luteum 6x)।
(৩) ডাতুরা স্ট্র্যামোনিয়াম 12x (Datura stramonium 12x)।
(৪) ডেলফিনিয়াম স্ট্যাফিসাগ্রিয়া 6x (Delphinium staphysagria 6x)।
(৫) জ্যান্থোক্সাইলাম 6x (Xanthoxylum fraxineum 6x)।
(৬) সাইক্ল্যামেন ইউরোপিয়াম 6x (Cyclamen europaeum 6x)।
(৭) ভিবার্নাম ওপুলাস 6x (Viburnum opulus 6x)।
(৮) হাইপেরিকাম পারফোরাটাম 6x (Hypericum perforatum 6x)।

আরও পড়ুন – মাসিকের সময় অসহ্য যন্ত্রণা কেন হয়?

আডাল -৩১ ঔধের কার্যকারিতা :

(ক) ক্যালিয়াম কার্বোনিকাম (Kalium Bicarbonicum) : এটি যৌন অঙ্গে প্রদাহের পাশাপাশি অনিয়মিত মাসিকের চিকিৎসা করে যা শক্তিশালী বা দুর্গন্ধযুক্ত। এটি নিউরোসিসের চিকিৎসার পাশাপাশি যৌন গ্রন্থির দুর্বলতার এর পাশাপাশি সাধারণ পেশী দুর্বলতা (অলিগোমেনোরিয়া, মেনোরহাগিয়া, হার্টের নিউরোসিস (কার্যকরী হার্টের অভিযোগ), সমস্যা দুর করে।

(খ) চ্যামেলিরিয়াম লুটিয়াম (Chamaelirium luteum) : এটি ক্লাš, নার্ভাস এবং হাইপার ইরিটেটেড মহিলাদের প্রশান্তি দেয় যাদের তলপেটে/হাইপোগ্যাস্ট্রিয়ামে গুরুতর দুর্বলতায় ভোগেন। এটি জরায়ুতে ব্যথা এবং প্রল্যাপসের ঝুঁকি সহ জরায়ুর দুর্বল লিগামেন্টের জন্য নির্দেশিত, স্তন ব্যথা এবং শ্রোণী প্রদাহের লক্ষণগুলি দুর করে।

(গ) ডাতুরা স্ট্র্যামোনিয়াম (Datura stramonium) : এটি মনস্তাত্ত্বিক অস্থিরতা মোকাবেলা করে যা ঘুমের ব্যাধির দিকে প্রচালিত। এটি শক্তিশালী ঋতুস্রাবের সাথে অন্ধকার, গলদা স্রাব এবং মেজাজের পরিবর্তনের চিকিৎসা করে।

(ঘ) ডেলফিনিয়াম স্ট্যাফিসাগ্রিয়া (Delphinium staphysagria) : দু:খিত অথবা বিষণ্ণ মেজাজ সংক্রান্ত নিউরাস্থেনিয়া, সেইসাথে ব্যথা এবং চুলকানির প্রতি সংবেদনশীল মহিলাদের যৌন অঙ্গগুলির চিকিৎসা করে। এটি পুরো শরীর জুড়ে স্নায়ুরোগ মোকাবেলা করে, জরায়ু বা অন্তঃসত্ত্বা পেসারির কারণে আঘাতের চিকিৎসায় চমৎকার কাজ করে। এটি লিউকোরিয়া এবং প্রুরাইটিস ভালভা সমাধান করে।

আরও পড়ুন – অতিরিক্ত রক্তস্রাব বা মেনোরেজিয়ায় হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা

(ঙ) জ্যান্থোক্সাইলাম (Xanthoxylum fraxineum) : ক্রমাগত ক্রমবর্ধমান মাথাব্যথা ও মহিলাদের যৌন অঙ্গের প্রদাহজনক জ্বালা ও তীব্র, নিশাচর জরায়ু ব্যথা। এটি পরিপাক অঙ্গের উপর প্রভাব নিয়ন্ত্রণে সাহায়তা করে এবং বমি বমি ভাব এবং অন্ত্রের কার্যক্ষমতার অসামঞ্জস্যতাকে মোকাবেলা করে যা প্রায়শই এই অবস্থার সাথে থাকে।

(চ) সাইক্ল্যামেন ইউরোপিয়াম (Cyclamen europaeum) : ডিম্বাশয়ের কর্মহীনতার কারণে অনিয়মিত ঋতুস্রাবের চিকিৎসা করে। এই লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে প্রচণ্ড ব্যথা যা পিঠ থেকে পিউবিক হাড় পর্যন্ত প্রজেক্ট করে যার সাথে ভারী ঋতুস্রাব, স্তন শক্ত হয়ে যাওয়া, মাথাব্যথা বা মাইগ্রেন এবং লিউকোরিয়া ইত্যাদি।

(ছ) ভিবার্নাম ওপুলাস (Viburnum opulus) : কটিদেশীয় অঞ্চলে স্পাস্টিক পিঠের ব্যথার চিকিৎসা করে যা প্রায়শই উরুর দিকে বিকিরণ করে ও নিস্তেজ, গুরুতর মাথাব্যথা দুর করে।

(জ) হাইপেরিকাম পারফোরাটাম (Hypericum perforatum) : এটি মাসিকের সময় মনস্তাত্ত্বিক নিয়ন্ত্রণ, সংক্রমণের বিরুদ্ধে সুরক্ষা প্রদান করার সময় ক্ষত, এবং যৌন অঙ্গের পাশাপাশি শরীরের অন্যান্য অংশে ব্যথা দুর করে।

আরও পড়ুন – এইচ আর – ৭৯ (মাসিকের আগে উপসর্গে কার্যকর)

অ্যাডাল – ৩১ ঔষধ সেবন বিধি : প্রাপ্ত বয়স্করা জন্য ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা, শিশুরা ৭ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ  ১/৪ কাপ পানিতে মিশিয়ে দিনে ৩ বার অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে।

চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।

শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : এই ঔষধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

সতর্কতা : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।

আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন। সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev