শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৬:৪১ অপরাহ্ন

অ্যাডল-৮ (উচ্চ রক্তচাপ)

আরোগ্য হোমিও হল / ৮৮ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশ কালঃ শুক্রবার, ১৫ মার্চ, ২০২৪, ৫:৩৬ অপরাহ্ন

অ্যাডল-৮ (উচ্চ রক্তচাপ)।
Adel-8 (high blood pressure)।
আরোগ্য হোমিও হল এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা এখানে আলোচনা করবো “ অ্যাডল-৮ (উচ্চ রক্তচাপ)”  কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ নিয়ে আজকে জনবো, এটা সবার জানা জরুরী! তো আর কথা নয় – সরাসরি মূল আলোচনায়।
প্রস্তুত প্রণালী : জার্মান কম্বিনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধ।
ব্যবহার : অ্যাডল-৮ ড্রপসটি উচ্চ রক্তচাপ এবং রেনাল হাইপারটেনশনে ব্যবহার করা হয়।
অ্যাডল-৮  ড্রপসটির ইঙ্গিত :
(ক) স্বীকৃত কারণ সহ বা ছাড়া উচ্চ রক্তচাপ।
(খ) রেনাল হাইপারটেনশন।
অ্যাডল-৮ ড্রপসটি ভুমিকা :  উচ্চ রক্তচাপের লক্ষণগুলি সাধারণত বেশি ভাগ বয়স্ক ব্যক্তিদের মধ্যে দেখা যায়। উচ্চ রক্তচাপ একটি সাধারণ রোগ, যেখানে রক্তনালীগুলির মধ্য দিয়ে স্বাভাবিক চাপের চেয়ে বেশি রক্ত প্রবাহিত হয়। এটি উচ্চ রক্তচাপ নামে পরিচিত। উচ্চ রক্তচাপে হার্ট স্ট্রোক অথবা হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়।  সাধারণত যে সব কারণে উচ্চ রক্তচাপে হয় যেমন – স্থূলতা, ধূমপান, অ্যালকোহল সেবন, মানসিক চাপ, ব্যায়ামের অভাব, অতিরিক্ত লবণ গ্রহণ, বংশগত উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস ইত্যাদি।

আরও পড়ুন –  এইচ আর – ১১ (উচ্চ রক্তচাপের চিকিৎসায় কার্যকর)

অ্যাডল-৮ ড্রপসটি উচ্চ রক্তচাপের লক্ষণ : বমি বমি ভাব, মাথাব্যথা, বমি, দৃষ্টি ঝাপসা, মাথা ঘোরা, ধড়ফড়ানি। , শ্বাসকষ্ট, নাক দিয়ে রক্ত পড়া (এপিস্ট্যাক্সিস) ইত্যাদি। উচ্চ রক্তচাপ বিভিন্ন উপায়ে সমস্যা তৈরি করতে পারে যেমন – ভাস্কুলার দুর্বলতা, রক্ত জমাট বাঁধার ঝুঁকি, প্লাক তৈরির বৃদ্ধি, ধমনী সংকীর্ণ এবং ব্লক হওয়ার কারণে অঙ্গ এবং টিস্যুর ।

আরও পড়ুন –  এইচ আর -১২ (নিম্ন রক্তচাপের চিকিৎসায় কার্যকর)

অ্যাডল-৮ ড্রপসটি উপাদান মিশ্রণ :
(১) অনামির্তা ককুলাস 4x (Anamirta Cocculus 4x)।
(২) অরম ক্লোরাটাম নেত্র 4x (Aurum Chloratum Natr 4x)।
(৩) আইবেরিস আমরা 6x (Iberis amara Iberis Amara 6x)।
(৪) বেরিয়াম কার্বোনিকাম 12x Barium Carbonicum 12x)।
(৫) ফেরুলা মোছাটা 6x (Ferula moschata 6x)।
(৬) ম্যাগনেসিয়াম 8x (Magnesium Chloratum 8x)।
(৭) মেলিলোটাস অফিসিয়ালিস 4x (Melilotus Officinalis 4x)।
(৮) ভিসকাম অ্যালবাম 6x (Viscum Album 6x)।

আরও পড়ুন –  কেন্ট ৩২ (উচ্চ রক্তচাপে কার্যকর)

অ্যাডল-৮ ড্রপসটি কার্যকারিতা :
(ক) অনামির্তা ককুলাস (Anamirta Cocculus) :  স্নায়ুতন্ত্রের অবস্থা (স্নায়ু বা স্নায়ু বিতরণে ব্যথা), মাথা ঘোরা ইত্যাদি দূর করে। এটি নিউরালজিক-প্যারেটিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এটি ঘুমের ক্ষতি থেকে উদ্ভূত অভিযোগেও সাহায্য করে।
(খ) অরম ক্লোরাটাম নেত্র (Aurum Chloratum Natr) :  এটি অ্যারিথমিক হার্টের ক্রিয়া এবং ধমনী স্ক্লেরোটিক অবস্থার কারণে উচ্চ রক্তচাপ তা নিয়ন্ত্রণ করে। এটি এনজাইনা পেক্টোরিস এবং হেপাটিক এবং পাচনতন্ত্রের অপ্রতুলতার জন্যও ব্যবহৃত হয় যা উচ্চ রক্তচাপের কারণ হতে পারে।
(গ) আইবেরিস আমরা (Iberis Amara) :  এটি হাইপার টনিক হার্টের ইঙ্গিতের চিকিৎসা করে। এটি সিঁড়ি বেয়ে উঠতে অথবা হাঁটার সময় গুরুতর ধড়ফড় এবং নিস্তেজ ব্যথা, বাম বাহুতে বিকিরণকারী ব্যথা হাঁটা থেকে আসে।

আরও পড়ুন –  এন – ৮৫ (উচ্চ রক্তচাপের ড্রপস)

(ঘ) বেরিয়াম কার্বোনিকাম (Barium Carbonicum) : দীর্ঘস্থায়ী লিম্ফ্যাটিক, অন্তঃস্রাবগ্রন্থিগুলির একটি হাইপোফাংশন দ্বারা সৃষ্ট অধঃপতিত আধ্যাত্মিক রোগের সমাধান করে। এটি অবক্ষয়জনিত প্রক্রিয়াগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করে যা স্থূলতা (কর্পুলেন্স), অটোস্ক্লেরোসিস (অভ্যন্তরীণ কানের হাড়ের অতিরিক্ত বৃদ্ধির কারণে প্রগতিশীল বধিরতা), ভার্টিগো, মায়োকার্ডিয়াল অবক্ষয়, ব্র্যাডিকার্ডিয়া, সংকোচন এবং শক্ত হয়ে যাওয়া ইত্যাদির চিকিৎসা করে।
(ঙ) ফেরুলা মোছাটা (Ferula Moschata) :  স্ক্লেরোটিক (কঠোর হয়ে যাওয়া) ধমনী, নার্ভাস হার্টের ব্যাঘাত, শারীরিক চাপের কারণে হৃৎপিণ্ডের ব্যাঘাত সহ ধড়ফড় করা, অনিয়মিত নাড়ি এবং বুকের বাম সাইডে ব্যথার চিকিৎসা করে।
(চ) ম্যাগনেসিয়াম (Magnesium Chloratum) :  ক্লোরাটা উচ্চ রক্তচাপের প্রবল ধড়ফড়, ছুরিকাঘাতের ব্যথা অথবা হজম অঙ্গের ক্র্যাম্পের লক্ষণগুলির চিকিৎসা করে যা ডিসপেপসিয়া (বদহজম) এবং অন্ত্র ও পেটের প্রদাহের সাথে থাকে। এটি হাইপারটোনিয়া (পেশী টান অস্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং একটি পেশী প্রসারিত করার ক্ষমতা হ্রাস) করে হাইপারটোনিয়া এবং অস্থিরতা দূর করে।
(ছ) মেলিলোটাস অফিসিয়ালিস (Melilotus Officinalis) :  থ্রম্বোসিস (সংবহনতন্ত্রের একটি অংশে রক্তের স্থানীয় জমাট বা জমাট বাঁধা) ও থ্রম্বোফ্লেবিটিস (সংশ্লিষ্ট থ্রম্বোসিসের সাথে শিরার প্রাচীরের প্রদাহ) বিরুদ্ধে কাজ করে। এটি হৃদস্পন্দন, ছুরিকাঘাতের ব্যথা এবং আশংকা (উদ্বেগ) এরও চিকিৎসা করে। এটি সঞ্চালনকে উন্নত করে।

আরও পড়ুন –  র‌্যাক্স নং- ২১ (উচ্চ রক্তচাপ)

(জ) ভিসকাম অ্যালবাম (Viscum Album) :  সঠিক নিয়মে রক্তসঞ্চালন এবং কার্ডিয়াক ব্যাঘাতের সমাধান করে। এটি এনজাইনা পেক্টোরিস (কাঁধ, বাহু এবং ঘাড়ে ছড়িয়ে থাকা, বুকে তীব্র ব্যথা), নিউরাইটিস (পেরিফেরাল নার্ভের প্রদাহ), জয়েন্ট রিউম্যাটিজম (প্রদাহ এবং ব্যথা), এক্সট্রাসিস্টোলস (স্বাভাবিক ছন্দের বাইরে হৃদস্পন্দন) এবং ক্ষয়জনিত হাড়ের পরিবর্তনের চিকিৎসা করে। রক্তের এই ধরনের অনিয়মিত বণ্টনের ফলে কানের মধ্যে বাঁশির আওয়াজের সাথে দাঁড়িয়ে বা নড়াচড়া করার সময় মাথা ঘোরা যায়।
অ্যাডাল – ৮ ঔষধ সেবন বিধি : প্রাপ্ত বয়স্করা জন্য ১৫ থেকে ২০ ফোঁটা, শিশুরা ৭ থেকে ১০ ফোঁটা ঔষধ ১/৪ কাপ পানিতে মিশিয়ে দিনে ৩ বার অথবা রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের পরামর্শে সেবন করতে হবে।
চিকিৎসকের কিছু পরারর্শ : ওষুধ খাওয়ার সময় মুখের কোনো তীব্র গন্ধ যেমন কফি, পেঁয়াজ, শিং, পুদিনা, কর্পূর, রসুন ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন। খাবার/পানীয়/অন্য কোনো ওষুধ এবং অ্যালোপ্যাথিক ওষুধের মধ্যে অন্তত আধা ঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।
সতর্কতা : গর্ভবতী মা অথবা দুগ্ধদানকারী মায়েরা ঔষধ সেবনের পূর্বে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের পরামর্শে ঔষধ সেবন করা উত্তম।

আরও পড়ুন –  র‌্যাক্স নং- ২২ (নিন্ম রক্তচাপ)

শর্তাবলী : কম্বেনেশন হোমিওপ্যাথি ঔষধগুলি সাধারণত লক্ষণে উপর ভিভি করে ব্যবহার করা হয়। মনে রাখবেন হোমিওপ্যাথিক সদৃশ্য বিধান একটি চিকিৎসা ব্যবস্থা, বেশি লক্ষণে সঙ্গে মিলিলে তবেই ব্যবহার যোগ্য। তা না হলে অবস্থার উপর নির্ভর করে ফলাফল পরিবর্তিত হতে পারে।
পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া : এই ঔষধ সেবনে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।
ঔষধ সরক্ষণ : সুস্ক ও শীতল স্থানে সুগন্ধ-দুগন্ধ, আলো-বাতাস থেকে দুরে, শিশুদের নাগালের বাহিরে রাখুন।
ঔষধের গুণগতমাণ : এটি একটি প্রাকৃতিক পণ্য, এটি কখনও কখনও সামান্য বৃষ্টিপাত অথবা মেঘলা হতে পারে, কিন্তু এটি পণ্যের গুণমান এবং এর কার্যকারিতা প্রভাবিত করে না। যদি এটি ঘটে তবে পণ্যটি ব্যবহার করার আগে ভালভাবে ঝাঁকি নিন। একবার আপনি সীলটি ভেঙে ফেললে, ওষুধগুলি দ্রুত ব্যবহার করা উচিত।
আরোগ্য হোমিও হল এডমিন : আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে রেজিষ্টার্ড হোমিওপ্যাথিক পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন।  এই ওয়েব সাইটটি কে কোন জেলা বা দেশ থেকে দেখছেন “লাইক – কমেন্ট” করে জানিয়ে দিন। যদি ভালো লাগে তবে “শেয়ার” করে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিন।  সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন।  আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


এ জাতীয় আরো খবর.......
Design & Developed BY FlameDev